ফ্লিপকার্ট, অ্যামাজন ও পেটিএম থেকে স্মার্টফোন কেনার সময় এই বিষয়গুলো মাথায় রাখুন

0
876

ই-কমার্স ওয়েবসাইট যেমন ফ্লিপকার্ট, অ্যামাজন ও পেটিএম -এ উৎসবকে কেন্দ্র করতে মেগাসেল শুরু হয়ে গেছে।বিভিন্ন ই-কমার্স সাইট থেকে এই উৎসবের মরসুমে আপনি অনেক কম দামে স্মার্টফোন কিনতে পারেন।ফ্লিপকার্ট, অ্যামাজন ও পেটিএম-এর মতো ই-কমার্স কোম্পানিগুলি এই সময় স্মার্টফোনের উপর অনেক ছাড় দেয়।সাধারণত আমরা আমাদের দরকারি সামগ্রী কেনার জন্য এই ধরণের মেগাসেলের অপেক্ষা করি।কিন্তু আপনি কি জানেন এই মেগা সেলের সময় বিভিন্ন পণ্যের অনেক বেশি অর্ডার হওয়ার জন্য,কোম্পানি অনেক সময় ভুল জিনিস পাঠিয়ে ফেলে বা আপনার কাছে পণ্যটি পৌঁছাতে অনেক দেরি হয়।এই সমস্ত সমস্যাগুলি এড়ানোর জন্য, ফ্লিপকার্ট, অ্যামাজন ও পেটিএম থেকে স্মার্টফোন কেনার সময় এই বিষয়গুলো মাথায় রাখুন।

মূল্য জেনে নিন :

কোনও স্মার্টফোন কেনার সময়, দয়া করে ভিন্ন ভিন্ন ওয়েবসাইট থেকে সঠিক মূল্য জেনে নিন।অনেকসময়ে, বিভিন্ন ওয়েবসাইটে কোনো স্মার্টফোনের দামের বিশাল পার্থক্য থাকে। অতএব,অনলাইনে যখন অর্ডার করবেন ,বিভিন্ন ওয়েবসাইট থেকে সঠিক দাম জেনে নেবেন।

রিভিউ ও রেটিং দেখুন :

কোনো স্মার্টফোন কেনার আগে ভালো করে রিভিউ ও রেটিং দেখে নেবেন।এমন কখনো কখনো হয় যে আপনার স্মার্টফোনটি পছন্দ হয়েছে কিন্তু ব্যবহারকারীরা ফোনটি সম্পর্কে খারাপ মন্তব্য করেছে।এর অর্থ ফোনটি আপনার জন্য ভালো নাও হতে পারে।যদিও এখন কোম্পানিগুলো মিথ্যা রিভিউ ও দেয়,সেইজন্য আপনাকে সমস্ত রিভিউ পড়তে হবে।

দেখুন ফোনটি নতুন নাকি রিফার্ববিশড :

অনেক সময় কম দামে ফোন কেনার ইচ্ছায় আমরা রিফার্ববিশড প্রোডাক্ট কিনে ফেলি।রিফার্ববিশড প্রোডাক্ট হলো সেই সমস্ত প্রোডাক্ট যেগুলো খারাপ হওয়ার পর কোম্পানি সারিয়ে আবার বিক্রি করছে।এই ফোনগুলো আবারও খারাপ হওয়ার সম্ভবনা থাকে।তাই স্মার্টফোন কেনার সময় অবশ্যই দেখে নেবেন ফোনটি নতুন নাকি রিফার্ববিশড।

সেরা অফারটি মাথায় রাখুন :

ই-কমার্স সাইটগুলি থেকে স্মার্টফোন অর্ডার দেওয়ার সময়,খুঁজে দেখুন কোন ওয়েবসাইট সেরা অফার দিচ্ছে। যেখানেই সেরা অফার দেওয়া হচ্ছে সেখানে থেকে স্মার্টফোন কিনে নিন।তবে অবশ্যই যাচাই করে।

ডেলিভারির সময় দেখে নিন :

এই সমস্ত সেলে অনেক অর্ডার হওয়ার কারণে বিভিন্ন সাইট দেরিতে প্রোডাক্ট ডেলিভারি করে।তাই স্মার্টফোন কেনার সময় প্রোডাক্টটি কখন পৌঁছাবে দেখে নেবেন।

স্মার্টফোনের ফিচার যাচাই করুন :

অনেকসময়, ই-কমার্স সাইটগুলি কোনো স্মার্টফোনকে আকর্ষণীয় করে তুলতে মিথ্যা ফিচার লিখে রাখে।তাই কোনো স্মার্টফোন কেনার সময় সেই কোম্পানির অফিসিয়াল ওয়েবসাইট থেকে স্মার্টফোনটির ফিচার যাচাই করে নেবেন।

পড়ুন : আপনি কি রিভিউ পড়ে অনলাইন সাইট থেকে প্রোডাক্ট কেনেন ? পড়ুন

রিটার্ন ও রিফান্ড পলিসি অবশ্যই পড়ে নিন :

আপনি তাড়াহুড়োতে কোনো স্মার্টফোনের রিটার্ন ও রিফান্ড পলিসি না পড়ে কিনে নিলেন।কয়েকদিন বাদে যখন ফোনটি খারাপ হয়ে গেলো,কোম্পানির সাথে যোগাযোগ করায় আপনাকে জানানো হলো এই স্মার্টফোনের রিটার্ন বা রিফান্ড সম্ভব নয়। ফলে আপনি সমস্যায় পড়ে গেলেন।তাই অনলাইনে কোনো প্রোডাক্ট কেনার আগে অবশ্যই রিটার্ন ও রিফান্ড পলিসি বারবার পড়ে নেবেন।

এক্সচেঞ্জ অফার সম্পর্কে বিস্তারিত জানুন :

ই-কমার্স সাইটগুলি অনেক স্মার্টফোনের উপর এক্সচেঞ্জ অফার দেয়।এরফলে ,আপনি আপনার পুরানো স্মার্টফোনের বিনিময়ে কম দামে নতুন ফোন কিনতে পারেন। এটি আপনার জন্য লাভজনক হবে।

বিক্রির পর পরিষেবা :

অনেক সময় দেখা গেছে প্রোডাক্ট বিক্রির কয়েকদিনের মধ্যে কোনো সমস্যা হলে সেলার দায় এড়াতে চায়।তাই ই-কমার্স সাইট থেকে স্মার্টফোন কেনার সময় রিভিউ অপশনে গিয়ে বিক্রির পর পরিষেবা কেমন সে বিষয়ে জানার চেষ্টা করবেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here