ই-ওয়ালেট এর সংখ্যা দিন দিন কমছে জানালো রিজার্ভ ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া

2006 সালে প্রথম ই-ওয়ালেট পরিষেবা চালু করা হয়েছিল

0
104

ভারতে ই-ওয়ালেট পরিষেবার বিস্তার দিন দিন কমছে।2006 সালে প্রথম ই-ওয়ালেট পরিষেবা চালু করা হয়েছিল। এরপর 2017 সাল পর্যন্ত মোট 60 টি ই-ওয়ালেট কোম্পানি বাজারে এসেছিলো।কিন্তু বিভিন্ন কারণে আজ এই সংখ্যা 49 এ গিয়ে ঠেকেছে।সম্প্রতি রিজার্ভ ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া এই তথ্যই আমাদেরকে জানিয়েছে।বিশেষজ্ঞদের মতে বাজারে প্রতিযোগিতা ও অল্প লাভ এই সংখ্যা কমার অন্যতম কারণ।

ই-ওয়ালেট এর বিস্তার :

Wallet365.com ছিল ভারতের প্রথম ই-ওয়ালেট পরিষেবা।এটি YES ব্যাংকের অ্যাসোসিয়েশন, টাইমস গ্রুপ 2006 সালে চালু করেছিল।এরপরে অন্যান্য ব্যাংক এবং নন-ব্যাংকিং ফিনান্সিয়াল সার্ভিস ফার্ম এই সেক্টরে পা রাখে।এর মধ্যে বিগবাস্কেট,গ্রোফার্স,আমাজন ও হোয়াটসঅ্যাপ বিশেষ ভাবে উল্লেখযোগ্য।তবে এদের মধ্যে Paytm এবং Mobikwik অনেকটাই বাজার দখল করে আছে।মূলত ভারতে স্মার্টফোনের সংখ্যা বাড়ায় ই-ওয়ালেটের সংখ্যা বেড়েছে।তবে এই সংখ্যা বাড়ার অন্যতম মূল কারণ ছিল 2016 সালে ভারতে নোটবন্দি।

ই-ওয়ালেট এর সংখ্যা কমার কারণ :

MobiKwik-র প্রতিষ্ঠাতা উপাসনা তাকু বলেন যে পেমেন্টস একটি হাই-ভলিউম সঙ্গে কম মূল্যের ব্যবসা এবং এটাই প্রতিটা কোম্পানির কাছে চ্যালেঞ্জ।এই ব্যবসা থেকে লাভ পাওয়ার জন্য কোম্পানিকে না তো কেবল গ্রাহক বাড়াতে হয় বরং মার্চেন্ট নেটওয়ার্কও ঠিক রাখতে হয়।আবার কখনো কখনো এমন কারণের সন্ধান করতে হয় যার ফলে গ্রাহক তাদের ওয়ালেটকে পেমেন্ট অপশন হিসাবে ব্যবহার করতে পারে।The Mobile Wallet-র প্রতিষ্ঠাতা বিনয় কালন্ত্রি বলেন এই ব্যবসায় যদি আপনার কাছে অনেক গ্রাহক না থাকে তবে আপনি আপনার পয়সা ও সময় দুটোই অপচয় করবেন।আর এই জন্য বড়ো বড়ো কোম্পানিগুলো ছোট ফার্মকে নিজেদের দখলে নিয়ে নিচ্ছে।আমরা জানি The Mobile Wallet গতবছরে Trupay কে কিনে নিয়েছিল।এছাড়াও Axis ব্যাংক FreeCharge কে এবং আমাজন Emvantage কে কিনে নিয়েছে।

RBI-র পদক্ষেপ :

এইসবের মধ্যে রিজার্ভ ব্যাংক ই-ওয়ালেট কোম্পানির সাথে আলোচনা করে একটি রূপরেখা তৈরী করেছে।ডিজিটাল ওয়ালেটের নেট ওর্থ 2 কোটি টাকা থেকে বাড়িয়ে 5 কোটি টাকা পর্যন্ত করা হয়েছে।এর ফলে সমস্যা বেড়েছে ছোটো কোম্পানিগুলোর।এছাড়াও রিজার্ভ ব্যাংক জানিয়েছে গ্রাহকের থেকে নূন্যতম একটি পরিচয়পত্র নিতে হবে। যার ফলে অনেক গ্রাহক মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছে।

এদিকে সুপ্রিম কোর্ট জানিয়ে দিয়েছে গ্রাহকদের আধার কার্ডের মাধ্যমে KYC সম্পূর্ণ করা যাবেনা, যা এই পরিস্থিতিকে আরো জটিল করে তুলেছে।কোম্পানির কোন পরিষেবার জন্য গ্রাহকদের থেকে আধার গ্রহণ নিষিদ্ধ করা হয়েছে।Payworld এর সিইও প্রভিন ধাভাই বলেন আগে আধার কার্ডের মাধ্যমে খুব সহজেই গ্রাহকের KYC সম্পূর্ণ করা হতো। কিন্তু এখন একটি দীর্ঘ প্রক্রিয়ার মাধ্যমে এই কাজ করতে হচ্ছে।

পড়ুন : পাবলিক WiFi ব্যবহারের আগে এই বিষয়গুলি মাথায় রাখুন, হ্যাক হতে পারে মোবাইল

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here