Google Pixel 3 থেকে iPhone XS Max, বিশ্বের সেরা ক্যামেরা স্মার্টফোনগুলি দেখে নিন

আসুন জেনে নেওয়া যাক ফোনগুলির নাম,মূল্য এবং স্পেসিফিকেশন।

0
137

বাজারে এই মুহূর্তে অনেক স্মার্টফোন আছে।কোনো স্মার্টফোন হার্ডওয়ারের দিক থেকে শক্তিশালী তো কিছু স্মার্টফোন ক্যামেরার জন্য পরিচিত।আজ আমরা কথা বলবো বিশ্বের সেরা ক্যামেরা স্মার্টফোনগুলি সম্পর্কে।আসুন জেনে নেওয়া যাক ফোনগুলির নাম,মূল্য এবং স্পেসিফিকেশন।

বিশ্বের সেরা ক্যামেরা স্মার্টফোনগুলি দেখে নিন :

Google Pixel 3 :

গুগল পিক্সেল ৩ তেগোরিলা গ্লাস ৫ এর সুরক্ষার সাথে রয়েছে একটি ৫.৫ ইঞ্চির পি – ওএলইডি ডিসপ্লে । স্ক্রিনটির রেজোলিউশন ২১৬০×১০৮০ পিক্সেল এবং আসপেক্ট রেশিও ১৮:৯। পিক্সেল ৩ কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮৪৫ প্রসেসর ও অ্যাড্রেনো ৬৩০ জিপিইউ এর সাথে লঞ্চ হয়েছে। ফোনটিতে আছে ৪ জিবি র‌্যাম এবং ৬৪ জিবি/ ১২৮ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ। ফোনটির অপারেটিং সিস্টেম অ্যান্ড্রয়েড ৯.০ পাই ও এতে ২৯১৫ এম এ এইচ একটি ব্যাটারি আছে।
ক্যামেরা: এই ফোনটিতে কেবলমাত্র একটি রিয়ার ক্যামেরা থাকলেও সেটি অসাধারণ ফটোগ্রাফি করতে সক্ষম। পিক্সেল ৩ তে রয়েছে ১২.২ মেগাপিক্সেলের লেন্স যার অ্যাপারচার f/১.৮ । এই ক্যামেরাটিতে রয়েছে অপটিক্যাল ইমেজ স্টেবিলাইজেশন , ডুয়াল পিক্সেল ফেজ-ডিটেক্ট অটো ফোকাস। এই ক্যামেরাটির মাধ্যমে আপনারা ২১৬০ পিক্সেল অবধি ভিডিও রেকর্ডিং করতে পারবেন। সেলফির জন্য সামনে আছে (৮+৮) মেগাপিক্সেল ডুয়াল আল্ট্রাওয়াইড লেন্স যা উন্নত মানের লো লাইট ফটোগ্রাফি করতে সক্ষম।

দাম : গুগল পিক্সেল ৩ ফ্ল্যাগশিপ ফোনটির ৬৪ জিবি স্টোরেজ মডেলটির দাম ৬৩,৩৫৪ টাকা এবং ১২৮ জিবি মডেলটির দাম ৭৪,৪১০ টাকা।

Huawei Mate 20 Pro :

হুয়াওয়ে মেট ২০ প্রো তে আছে ৬.৩৯ ইঞ্চির অ্যামোলেড ডিসপ্লে,কর্নিং গোরিলা গ্লাসের সুরক্ষার সাথে। এর স্ক্রিনটির রেজোলিউশন ১৪৪০×৩১২০ পিক্সেল এবং আসপেক্ট রেশিও ১৯.৫:৯। এই ফোনটিতে আছে হাইসিলিকন কিরিন ৯৮০(৭ ন্যানোমিটার) প্রসেসর এবং মালি জি৭৬ জিপিইউ। ফোনটির অপারেটিং সিস্টেম অ্যান্ড্রয়েড ৯.০ পাই এবং ইউজার ইন্টারফেস EMUI ৯। ফোনটিতে রয়েছে ৬ জিবি র‌্যাম ও ১২৮ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ এবং আছে ৪২০০ এমএএইচ এর একটি ব্যাটারি।

ক্যামেরা: মেট ২০ প্রো তে রয়েছে ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ। ক্যামেরাতে ব্যবহার করা হয়েছে লাইকা অপটিক্স। এই তিনটি ক্যামেরার প্রধানটি ৪০ মেগাপিক্সেলের f/১.৮ অ্যাপারচারের সাথে দ্বিতীয়টি ২০ মেগাপিক্সেলের আল্ট্রাওয়াইড লেন্স এবং তৃতীয়টি ৮ মেগাপিক্সেলের টেলিফটো লেন্স। এই ক্যামেরাতে দেওয়া হয়েছে অপটিক্যাল জুম ,অপটিক্যাল ইমেজ স্টেবিলাইজেশন, ফেজ ডিটেক্ট অটো ফোকাস এবং লেজার অটো ফোকাস এর মতো ফিচার। রিয়ার ক্যামেরা দিয়ে আপনি ২১৬০ পিক্সেল অবধি ভিডিও রেকর্ডিং করতে পারবেন। এই ফোনটিতে সেলফির জন্য ২৪ মেগাপিক্সেলের সেলফি ক্যামেরা দেওয়া রয়েছে f/২.০ অ্যাপারচারের সাথে যার সাহায্যে আপনি দুর্দান্ত লো-লাইট সেলফি তুলতে পারবেন। সেলফি ক্যামেরার সাহায্যে আপনি ১০৮০ পিক্সেল অবধি ভিডিও রেকর্ডিং করতে পারবেন।

দাম : হুআওয়েই মেট ২০ প্রো এর দাম ৬৯,৯৯০ টাকা ।

Samsung Galaxy Note 9 :

নোট ৯ এ কর্নিং গোরিলা গ্লাস ৫ এর সুরক্ষার সাথে রয়েছে ৬.৪ ইঞ্চি কিউ এইচ ডি প্লাস অ্যামোলেড ডিসপ্লে । স্ক্রিনটির রেজোলিউশন ২৯৬০×১৪৪০ পিক্সেল এবং আসপেক্ট রেশিও ১৮.৫:৯ । এটিতে আপনারা পাবেন দুটি র‌্যাম/ স্টোরেজ বিকল্পে যথা ৬ জিবি র‌্যাম ও ১২৮ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ এবং ৮ জিবি র‌্যাম ও ৫১২ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ । ফোনটির অপারেটিং সিস্টেম অ্যান্ড্রয়েড ৮.১ ওরিও যা আপনারা অ্যান্ড্রয়েড ৯.০ পাই তে আপগ্রেড করতে পারেন। এই ফোনটিতে রয়েছে এক্সিনোস এর ৯৮১০ প্রসেসর এবং গেমিং এর জন্য রয়েছে মালি জি৭২ জিপিইউ। এছাড়াও এই ফোনটিতে রয়েছে একটি ৪০০০ এমএএইচ এর ব্যাটারি।

ক্যামেরা: নোট ৯ এ রয়েছে ডুয়াল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ যার প্রধানটি ১২ মেগাপিক্সেলের f/১.৫ অ্যাপারচারের সাথে। এবং দ্বিতীয়টি একটি 12 মেগাপিক্সেলের টেলিফটো লেন্স যার অ্যাপারচার f/২.৪। লেন্সগুলিতে রয়েছে ফেজ ডিটেক্ট অটো ফোকাস, অপটিক্যাল এবং ইলেকট্রনিক ইমেজ স্টেবিলাইজেশন এবং অপটিক্যাল জুম। ব্যাক ক্যামেরার সাথে আপনি ২১৬০ পিক্সেল অবধি ভিডিও রেকর্ডিং করতে পারবেন। সামনে সেলফি জন্য আছে ৮ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা f/১.৭ অ্যাপারচারের সাথে। ফ্রন্ট ক্যামেরার সাথেও আপনি ১৪৪০ পিক্সেল অবধি ভিডিও রেকর্ডিং করতে পারবেন।

দাম : এই ফোনটির ৬ জিবি র্যাম মডেলটির দাম ৬০,৪০০ টাকা ও ৮ জিবি র্যাম মডেলটির দাম ৬৭,৯০০ টাকা ।

Apple iPhone XS Max :

এই ফোনটিতে আছে ৬.৫ ইঞ্চি সুপার অ্যামোলেড ডিসপ্লে ওলিওফোবিক কোটিং এর সুরক্ষার সাথে। স্ক্রিনটির রেজোলিউশন ১২৪২×২৬৮৮ পিক্সেল এবং আসপেক্ট রেশিও ১৯.৫:৯। ফোনটিতে আছে ৪ জিবি র‌্যাম ও ৬৪ জিবি ,১২৮ জিবি , ৫১২ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ বিকল্প। এই ফোনটিতে দেওয়া হয়েছে অ্যাপেল এ১২ (৭ ন্যানোমিটার) বায়োনিক চিপসেট এবং গেমিং এর জন্য রয়েছে অ্যাপেল জিপিইউ। ফোনটির অপারেটিং সিস্টেম আইওএস ১২ যা আপনি আইওএস ১২.১ এ আপগ্রেড করাতে পারবেন। এছাড়াও ফোনটিতে রয়েছে ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট সহ ৩১৭৪ এমএএইচ এর একটি ব্যাটারি।

ক্যামেরা : এই ফোনটিতে রয়েছে ডুয়াল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ যার প্রধান টি 12 মেগাপিক্সেলের ওয়াইড এঙ্গেল লেন্স f/১.৮ অ্যাপারচার সহ। এবং দ্বিতীয়টি 12 মেগাপিক্সেলের টেলিফটো লেন্স f/২.৪ অ্যাপারচারের সাথে। ক্যামেরাটিতে রয়েছে অপটিক্যাল ইমেজ স্টেবিলাইজেশন, ফেজ ডিটেক্ট অটো ফোকাস এবং অপটিক্যাল জুম। এই ব্যাক ক্যামেরাটির মাধ্যমে আপনি ২১৬০ পিক্সেল অবধি ভিডিও রেকর্ডিং করতে পারবেন। সেলফির জন্য এই ফোনটিতে আছে ৭ মেগাপিক্সেলের সেলফি ক্যামেরা f/২.২ অ্যাপারচারের সাথে। এই ক্যামেরাটির মাধ্যমে আপনি ১০৮০ পিক্সেল অবধি ভিডিও রেকর্ডিং করতে পারবেন।

দাম : অ্যাপেল আইফোন এক্স এস ম্যাক্স এর ৬৪ জিবি মডেলটির দাম ১,০৭,৯০০ টাকা ২৫৬ জিবি মডেলটির দাম ১,২২,৯০০ টাকা এবং ৫১২ জিবি মডেলটির দাম ১,৪০,০০০ টাকা।

পড়ুন : 10000 টাকার মধ্যে 2018 সালের সেরা বাজেট ফোনগুলো দেখে নিন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here