কিভাবে অনলাইনে প্যান কার্ড বানাবেন ? ধাপে ধাপে দেখে নিন

0
536

পার্মানেন্ট একাউন্ট নম্বর বা প্যান ভারতের নাগরিকদের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ নথি।৫০০০০ টাকার উপর আয়কর জমা দিতে,এমনকি ব্যাংকে আ্যকাউন্ট খোলার জন্য প্যান কার্ড প্রয়োজনীয়।এবার জেনে নেওয়া যাক ভারতীয় নাগরিক হিসেবে আপনার নিজের প্যান কার্ড তৈরির জন্য কি কি নথির প্রয়োজন:

ভারতের নাগরিক হিসাবে আপনার তিন ধরনের নথি প্রয়োজন – পরিচয় পত্র, বয়সের প্রমান পত্র ও জন্ম তারিখের পরিচয় পত্র।

পরিচয় পত্রের ক্ষেত্রে নিম্নলিখিত যেকোন একটি আপনি ব্যবহার করতে পারেন:

●নির্বাচকের ছবি সহ পরিচয় পত্র
●আবেদনকারীর ছবি সহ রেশন কার্ড
●পাসপোর্ট
●ড্রাইভিং লাইসেন্স
●আর্মস লাইসেন্স
●ইউনিক আইডেন্টিফিকেশন অথোরিটি অফ ইন্ডিয়া দ্বারা ইস্যু করা আধার কার্ড
●কেন্দ্রীয় সরকার বা রাজ্য সরকার বা পাবলিক সেক্টর অধীনস্ত অফিসের দ্বারা ইস্যু করা ছবি সহ পরিচয়পত্র
●আবেদনকারীর ছবি থাকা পেনশন কার্ড
● কেন্দ্রীয় সরকারের স্বাস্থ্য পরিকল্পনা কার্ড বা প্রাক্তন কর্মচারীর ছবি সহ স্বাস্থ্য পরিকল্পনা কার্ড।
●সংসদ সদস্য বা আইন পরিষদের সদস্য বা পৌর কাউন্সিলর বা গেজেটেড অফিসার দ্বারা স্বাক্ষরিত স্বীকৃতিপ্রাপ্ত শংসাপত্র।
●ব্যাংকের ব্রাঞ্চের লেটার হেডে আ্যটাস্টেড করা ছবি ও আবেদনকারীর আ্যকাউন্ট নম্বর সহ ব্যাংক সার্টিফিকেট,এক্ষেত্রে যে আধিকারিক সার্টিফিকেটটি ইস্যু করবেন তার স্ট্যাম্প ও নাম থাকতে হবে।

বাসস্থানের পরিচয় পত্রের ক্ষেত্রে নিম্নলিখিত যেকোন একটি আপনি ব্যবহার করতে পারেন,কিন্তু কোন নথি তিন মাসের অধিক পুরোনো হওয়া চলবে না :

● বিদ্যুতের বিল
● ল্যান্ডলাইন টেলিফোন বা ব্রডব্যান্ড কানেকশনের বিল
● জলের বিল
● রান্নার গ্যাসের পাসবুক বা কার্ড বা তার বিল
● ব্যাংক আ্যকাউন্টের বিবৃতি
● আমানত আ্যকাউন্টের বিবৃতি
● ক্রেডিট কার্ডের বিবৃতি
● আবেদনকারীর ঠিকানা সহ পোস্ট অফিসের পাসবুকের কপি।
● পাসপোর্ট
● ভোটার আইডি কার্ড
● সম্পত্তি করের সর্বশেষ দলিল
● ড্রাইভিং লাইসেন্স
● সরকার কর্তৃক ইস্যু করা ডোমিসিয়েল সার্টিফিকেট
● ইউনিক আইডেন্টিফিকেশন অথোরিটি অফ ইন্ডিয়া দ্বারা ইস্যু করা আধার কার্ড
● কেন্দ্রীয় সরকার বা রাজ্য সরকার কর্তৃক প্রদত্ত বাসস্থান বরাদ্দের চিঠি,যা তিন বছরের অধিক পুরোন হওয়া যাবে না।
● সম্পত্তি রেজিস্টেশনের নথি।
● সংসদ সদস্য বা আইন পরিষদের সদস্য বা পৌর কাউন্সিলর বা গেজেটেড অফিসার দ্বারা স্বাক্ষরিত স্বীকৃতিপ্রাপ্ত শংসাপত্র।

জন্ম তারিখের পরিচয় পত্রের ক্ষেত্রে নিম্নলিখিত যেকোন একটি আপনি ব্যবহার করতে পারেন :

● মিউনিসিপ্যাল অথোরিটি বা জন্ম ও মৃত্যুর নথি ইস্যুর অনুমোদিত যেকোন অফিসের ইস্যু করা বার্থ সার্টিফিকেট
● পেনশন পেমেন্ট অর্ডার
● বিয়ের রেজিস্ট্রার দ্বারা ইস্যু করা মেরেজ সার্টিফিকেট
● ম্যাট্রিকুলেশন সার্টিফিকেট
● পাসপোর্ট
● ড্রাইভিং লাইসেন্স
● সরকার কর্তৃক ইস্যু করা ডোমিসিয়েল সার্টিফিকেট
● ম্যাজিস্ট্রেটের সামনে এফিডেভিট করা জন্ম তারিখের পত্র

ভারতীয় নাগরিকদের নতুন প্যান কার্ড অনলাইনে আবেদন করতে হলে ১১৬ টাকা লাগবে ও তার সাথে ৫ টাকা লাগবে অনলাইনের পেমেন্ট হিসাবে।

অনলাইনে আবেদনের পদ্বতি :

● আপনি এনএসডিএল বা ইউটিআইটিএসএল ওয়েবসাইটগুলির মাধ্যমে অনলাইনে প্যান কার্ডের জন্য আবেদন করতে পারেন। উভয়ই ভারতে প্যান কার্ড ইস্যু করার জন্য অনুমোদিত হয়েছে। এই টিউটোরিয়ালের জন্য, আমরা আপনাকে দেখাব কিভাবে এনএসডিএল ওয়েবসাইটের মাধ্যমে একটি প্যান কার্ডের জন্য আবেদন করতে হবে।

● আগের ধাপে লিংকে, আপনি অনলাইন প্যান অ্যাপ্লিকেশন শিরোনামের একটি ফর্ম দেখতে পাবেন। অ্যাপ্লিকেশনের অধীনে নির্বাচন করুন নিউ প্যান – ইন্ডিয়ান সিটিজেন (ফর্ম 4 9এ)। আপনি যদি বিদেশী নাগরিক হন তবে নির্বাচন করুন নিউ প্যান – ফরেন সিটিজেন(ফর্ম 4 9এএ)।
● আপনি প্রয়োজন মতো প্যান কার্ডের বিভাগ নির্বাচন করুন। অধিকাংশ মানুষের জন্য, এটি হবে “ইন্ডিভিডুয়াল”
● এখন আপনার ব্যক্তিগত বিবরণ যেমন নাম, জন্ম তারিখ, মোবাইল নম্বর, ইত্যাদি পূরণ করুন, ক্যাপচা কোডটি দিন এবং সাবমিট এ ক্লিক করুন।
● এখন আপনার কাছে তিনটি অপশন রয়েছে – আধারের মাধ্যমে যাচাই করানো যাতে কোনও নথি না পাঠাতে হয়ে , নথি স্ক্যান করা এবং ই-সাইন দিয়ে তাদের আপলোড করা, অথবা সরাসরি অফিসে গিয়ে নথি জমা দেওয়া।
● আপনি যদি আধার কার্ডের মাধ্যমে নথি যাচাই করিয়ে নিতে চান,তাহলে শুধু ওটিপি ও পেমেন্ট জরুরি,আর অন্য দুটি অপশনের ক্ষেত্রেও একই জিনিস প্রযোজ্য শুধু নথি পাঠানো ছাড়া।
● আধার নম্বর দেওয়ার পর আপনি ক্লিক করুন “নেক্সট”
● এই স্টেপে আপনাকে আপনার নাম, জন্ম তারিখ, ঠিকানা, ইত্যাদি পূরণ করতে হবে। এটি করুন, এবং ক্লিক করুন “নেক্সট”
● এরপর আসবে এও কোড বা এসেসিং অফিসার কোড ,তার চারটি অপশানের ” ইন্ডিয়ান সিটিজেন,ফরেন সিটিজেন ,ডিফেন্স ক্যাটাগরি বা গভর্মেন্ট ক্যাটাগরি ” মধ্যে যেকোন একটি ক্লিক করুন।
● এও কোড এ ক্লিক করুন,এবং আপনার রাজ্য ও ঠিকানা ক্লিক করুন। এও কোডে ক্লিক করার কিছুক্ষন পর একটি বক্স ওপেন হবে এবং সেখানে আপনার পছন্দ মত ক্যাটাগরি বেছে নিনএবং ক্লিক করুন “নেক্সট”।
● আপনি ড্রপ ডাউন মেনু থেকে বয়স এবং বাসস্থানের পরিচয় পত্র হিসাবে জমা করা দস্তাবেজ নির্বাচন করুন, প্রয়োজনীয় বিবরণ পূরণ করুন, এবং তারপর ” সাবমিট ” ক্লিক করুন।
● এবার আপনাকে পেমেন্ট এর পেজে নিয়ে যাওয়া হবে, সেখানে অনলাইনে পেমেন্টের যেকোন পদ্ধতি নিবার্চন করুন।
● এবার আপনাকে আধারের ওটিপি র মাধ্যমে যাচাই করানো,ই-সাইন দিয়ে নথি আপলোড করা, অথবা এনএসডিএল অফিসে গিয়ে নথি জমা দেওয়া এই তিনটির মধ্যে যেকোন একটি বেছে নিতে হবে। আপনার ইমেইল এ এনএসডিএল একটি মেইল পাঠাবে,একনলেজমেন্ট নম্বর সহ।যেটি আপনাকে মনে রাখতে হবে বা সুবিধার জন্য প্রিন্ট করেও রাখতে পারেন।

আবেদন প্রক্রিয়াটি প্রসেস সম্পূর্ণ হলে প্যান কার্ডটি কুরিয়ারের মাধ্যমে আপনার বাড়িতে পৌঁছে যাবে।