স্লো ইন্টারেনেটের দিন শেষ, ফেসবুক কি আনছে জেনে নিন

0
625

বিজনেস ইনসাইডারের একটি রিপোর্ট অনুযায়ী,অপর্যাপ্ত পরিকাঠামো আছে এমন এলাকায় ফেসবুক চেষ্টা করছে ইন্টারনেট যোগাযোগ ব্যবস্থা বৃদ্ধির,সেই লক্ষ্যেই ফেসবুক পরীক্ষা মূলক ভাবে পকেটে রাখার মত ড্রোন ব্যবহারের চেষ্টা করছে।ড্রোন গুলিকে এমন ভাবে তৈরী করা হয়েছে,যাতে হাই ডেনসিটির সলিড স্টেট ড্রাইভ বহন করতে পারে,যার সাহায্যে ডেটা পরিবহন করতে পারে।ভার্জের একটি রিপোর্ট অনুযায়ী,ড্রোন গুলি সম্ভবত গ্রাউন্ডেড কানেকশন ও স্মার্টফোন ব্যবহারকারীদের মধ্যে একটি মেশ নেটওয়ার্ক হিসাবে কাজ করবে,হাই স্পিড ডেটা সরবরাহ করার জন্য।

ভার্জের একটি রিপোর্ট অনুযায়ী, ২০১৭ সালে ফেসবুক একটি হেলিকপ্টার ড্রোন প্রকল্প বন্ধ করে দিয়েছিল,যা আপতকালীন পরিস্থিতিতে সেলুলার সার্ভিসের পরিবর্তে ব্যবহার করা যেত।২০১৭ সালের মে মাসে এফ8 ডেভেলপার কনফারেন্সে প্রদর্শিত হওয়ার কয়েক মাস পরে প্রকল্পটি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল।

২০১৮ সালের জুন মাসে ফেসবুক ঘোষনা করে,তারা “আ্যকুইলিয়া” নামের সৌরশক্তির সাহায্যে চালিত ড্রোনের নিমার্ন বন্ধ করে দেবে,এই প্রকল্পটির মূল লক্ষ্য ছিল প্রতন্ত এলাকায় থাকা ৪ বিলিয়ন লোকের কাছে ইন্টারনেট পরিষেবা পৌঁছে দেওয়া।

এই প্রকল্পটি ২০১৪ সালে ফেসবুক শুরু করে এবং ২০১৭ সালের মধ্যে সৌরশক্তি চালিত ড্রোনটি তার দ্বিতীয় সফল উড়ান সম্পন্ন করে।কিন্তু সোশাল মিডিয়া জায়েন্ট ফেসবুকের ইন্টারনেট.অর্গ প্রকল্পটির মাধ্যমে সেই সব লোকেদের কাছে ইন্টারনেট পরিষেবা ও তার সুবিধা পৌছে দেওয়ার লক্ষ্য স্থির করেছে,যারা এখনও এইসব পরিষেবা থেকে বঞ্চিত।তাই এখন দেখার বিষয় এই নুতন প্রকল্পটি কতটা কার্যকরী হয়।

পড়ুন : 4G সিম হওয়া সত্ত্বেও স্লো ইন্টারনেট, এই উপায়ে বাড়াতে পারেন ইন্টারনেট স্পিড