টেম্পার্ড গ্লাস কেনার আগে যে ছয়টি তথ্য আপনার অবশ্যই জানা উচিত

0
383

স্মার্টফোন কেনার সময় সবথেকে বেশি যে জিনিসটি পর্যবেক্ষণ করা হয় তা হল স্ক্রিন। স্মার্টফোনের স্ক্রিনের টাচ রেসপন্স বা কালার কনট্রাস্ট সবটাই খতিয়ে দেখা হয়। তাই ফোন কেনার পর স্ক্রিন খারাপ হওয়া থেকে রক্ষা করতে ব্যবহার করা হয় বিভিন্ন ধরণের স্ক্রিন প্রটেক্টর। সে একদম পাতলা প্লাস্টিকের মতই হোক বা টেম্পার্ড গ্লাসই হোক। সবাই সাবধানের সাথে স্মার্টফোন ব্যবহার করে যাতে স্ক্রিন ভেঙে না যায়। তবুও স্ক্র্যাচ এর সমস্যা সমাধানের জন্য একমাত্র উপায় স্ক্রিন প্রটেক্টর।

তাই যেকোন স্ক্রিন প্রটেক্টর কেনার আগে বেশ কিছু তথ্য জেনে রাখা উচিত :

●স্ক্রিন প্রটেক্টর কেন ব্যবহার করা হয়?

এখন অনেক স্মার্টফোনে গরিলা গ্লাস, ওয়াটারপ্রুফ গ্লাস বা স্ক্র্যাচ প্রুফ ডিসপ্লে থাকে, যা খুবই মজবুত হয় কিন্তু এমন কিছু জিনিস আছে যা এই সব ডিসপ্লে কেও নষ্ট করতে পারে,যেমন বিচ স্যান্ড। স্ক্রিন প্রটেক্টর ব্যবহার করলেও তা ক্ষতিগ্রস্ত হবে কিন্তু তা সহজেই বদলানো যায়, কারন ফোনের ডিসপ্লে খারাপ হয়ে গেলে তা খরচ সাপেক্ষ এবং সময় সাপেক্ষ। স্ক্রিন প্রটেক্টরের সহজলভ্যতা এর ব্যবহারের মূল কারণ।

●কত প্রকারের স্ক্রিন প্রটেক্টর আছে?

মূলত দুপ্রকারের স্ক্রিন প্রটেক্টর বাজারে আছে- প্লাস্টিক ফিল্ম ও টেম্পার্ড গ্লাস।
প্লাস্টিক ফিল্ম আসলে পাতলা প্লাস্টিকের আস্তরণ যা আঠার সাহায্যে ডিসপ্লের উপর লাগানো হয়, এগুলি মজবুত হয়না, কারন এটি ব্যবহার করা হয় স্ক্রাচের থেকে স্ক্রিনকে রক্ষা করার জন্য।
টেম্পার্ড গ্লাস খুবই মজবুত হয়,মূলত হাত থেকে ফোন পড়ে গেলেও যাতে ফোনের ডিসপ্লে না ভাঙে তার জন্য টেম্পার্ড গ্লাস ব্যবহার করা হয়।এটি অনেকটা ডিসপ্লের উপর সেকেন্ডারি ডিসপ্লে হিসাবে কাজ করা যা ব্যবহার করার সময় কোন রকম অস্বাভাবিকতা অনুভব হয় না।

● টেম্পার্ড গ্লাস কি?

গ্লাসকে উচ্চ তাপে কাগজের মত পাতলা করা হয় এবং সঙ্গে সঙ্গে ঠান্ডা করা হয়, এর ফলে গ্লাস আরো মজবুত এবং টেকসই হয়। ফোনের স্ক্রিন ভেঙ্গে যাওয়া বা স্ক্রাচের থেকে ডিসপ্লেকে রক্ষা করতে এই খুবই গুরুত্বপূর্ণ জিনিস, যা খারাপ হয়ে গেলে সহজেই বদলানো যায়।

●এগুলি কি বাকানো যায়?

সমস্ত ডিসপ্লেই অল্প হলেও বাকানো যায়, তাই টেম্পর্ড গ্লাসও তার ব্যতিক্রম নয়। অল্প বাকানো যায় বলে এগুলি সহজে ভেঙে যায় না এবং মজবুত হয়।

● স্ক্রিন গার্ড টার্মিনোলজি

9h হার্ডনেস: কোন 9h পেন্সিল যা খুবই মজবুত, তার দ্বারা কোন স্ক্র্যাচ করলেও স্ক্রিনের কোন ক্ষতি হবে না।

প্রাইভেসি লেয়ার: স্ক্রিন গার্ড গুলিকে এমন ভাবে বানানো হয় যাতে পাশে থাকা কোন ব্যক্তি ডিসপ্লেটি ভালো ভাবে দেখতে না পারে, যদিও এই ফিচার সম্পূর্ণ ভুয়ো অনেকের মতে।

ম্যাট ডিসপ্লে: ব্যবহারকারী তার পছন্দ মত গ্লসি বা ম্যাট যেকোন ধরনের স্ক্রিন গার্ড ব্যবহার করতে পারবে, যা শুধুমাত্র ডিসপ্লের লুকসই বদলাবে।

●পারশিয়াল প্রটেকশন:

স্ক্রিন গার্ড শুধুমাত্র ডিসপ্লের সামনের অংশকেই রক্ষা করে কিন্তু ধার গুলি ভেঙে যাওয়ার সম্ভাবনা থেকেই যায় তাই স্ক্রিন গার্ডের সাথে একটি কভার থাকা খুবই জরুরি।

টেম্পার্ড গ্লাস অবশ্যই কোন ভেরিফাইড ওয়েবসাইট থেকে কেনা উচিত,কারন বাজারে চলতি টেম্পার্ড গ্লাস সস্তা হলেও মজবুতি অনেক কম হয়ে তাই ফোনের ডিসপ্লে খারাপ হওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি।