15 হাজার টাকার মধ্যে স্মার্টফোন খুঁজছেন ? দেখে নিন এ বছরের সেরা 5 মোবাইল ফোন

0
3559

এই মুহূর্তে বাজেট ফোন বা মিড রেঞ্জ ফোনে মার্কেট ছেয়ে গেছে। তবে দাম কম হলেও যে স্পেসিফিকেশন বা কোয়ালিটি খারাপ হবে সেসব কথা এখন অতীত। শাওমি, রিয়েলমি, স্যামসাং মিড রেঞ্জ ফোনে যেসব ফিচার ব্যবহার করছে সেইসব ফিচার আমরা প্রিমিয়াম ফোনে পাই। আপনি যদি ভালো বাজেট ফোন খোঁজ করেন এবং ভাবেন কোনটা ছেড়ে কোনটা নেবো, তবে এই পোস্টটি আপনার জন্য। কারণ আজ আমরা বলবো 15 হাজার টাকার মধ্যে সেরা 5 টি স্মার্টফোন সম্পর্কে ।

Xiaomi Redmi Note 7S : দাম শুরু 10,999 টাকা থেকে

এইমুহূর্তে ভারতে 48 মেগাপিক্সেল ক্যামেরার সবচেয়ে সস্তা ফোন হলো Redmi Note 7S । ডুয়াল সিমের এই ফোনে 6.3 ইঞ্চি ফুল এইচডি প্লাস ডিসপ্লে দেওয়া হয়েছে। ডিসপ্লের সুরক্ষার জন্য কার্র্নিং গরিলা গ্লাস 5 আছে। এছাড়াও এই ফোনে পাবেন স্ন্যাপড্রাগন 660 প্রসেসর, 3 ও 4 জিবি র‌্যাম, 32 ও 64 জিবি স্টোরেজ। মাইক্রোএসডি কার্ডের মাধ্যমে এর স্টোরেজ 256 জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে।

ফটোগ্রাফির কথা বললে এই ফোনে ডুয়াল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ আছে। যার প্রাথমিক সেন্সর 48 মেগাপিক্সেল এবং সেকেন্ডারি সেন্সর 5 মেগাপিক্সেল। সেলফির জন্য এই ফোনে পাবেন 13 মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা। ফ্রন্ট ক্যামেরার সাথে AI পোর্ট্রেট মোড দেওয়া হয়েছে। Redmi Note 7S ফোনে ফাস্ট চার্জিং প্রযুক্তির সাথে 4000mAh ব্যাটারি দেওয়া হয়েছে।

Xiaomi Redmi Note 7 Pro : দাম শুরু 13,999 টাকা থেকে

যদি 15,000 টাকার মধ্যে সেরা ফোন খোঁজ করেন তবে Redmi Note 7 Pro আপনার প্রথম পছন্দ হবে। এই ফোনে 6.3 ইঞ্চি ফুল এইচডি প্লাস LTPS ডিসপ্লে দেওয়া হয়েছে,যার আসপেক্ট রেশিও হলো 19.5:9 এবং স্ক্রিন রেজোলিউশন 1080 × 2340 পিক্সেল।স্ক্রিনের সুরক্ষার জন্য কর্নিং গরিলা গ্লাস 5 আছে। এই ফোন 2.0 গিগাহার্টজ স্ন্যাপড্রাগন 675 অক্টা কোর প্রসেসরের সাথে লঞ্চ হয়েছে। ফোনটি 4 জিবি ও 6 জিবি র‍্যামের সাথে এসেছে।এছাড়াও ফোনে 64 জিবি ও 128 জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ রয়েছে।

ফটোগ্রাফির জন্য এই ফোনে ডুয়াল রিয়ার ক্যামেরার দেওয়া হয়েছে।যার প্রাথমিক ক্যামেরাটি Sony IMX586 সেন্সরের সাথে 48 মেগাপিক্সেলের(এফ/1.8 অ্যাপারচার) এবং দ্বিতীয়টি LED ফ্লাশের সাথে 5 মেগাপিক্সেলের।আবার সেলফির জন্য 13 মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা আছে। ফোনটিতে কুইক চার্জ প্রযুক্তি যুক্ত 4,000 এমএএইচ ব্যাটারি রয়েছে।

Realme 3 Pro : দাম শুরু 13,999 টাকা থেকে

আপনি যদি Xiaomi Redmi Note 7 Pro এর বিকল্প খোঁজেন তবে Realme 3 Pro এর নাম আসবে। এই ফোনে ওয়াটারড্রপ নচ ফিচারের সাথে 6.3 ইঞ্চি এইচডি প্লাস ডিসপ্লে দেওয়া হয়েছে। ফোনের প্রসেসরের কথা বললে এতে স্ন্যাপড্রাগন 710 চিপসেট পাবেন। অন্যান্য ফিচারের মধ্যে এই ফোনে আছে 4 ও 6 জিবি র‌্যাম, 64 ও 128 জিবি স্টোরেজ এবং অ্যান্ড্রয়েড 9 পাই অপারেটিং সিস্টেম।

ক্যামেরার কথা বললে এই ফোনে পাবেন 25 মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা এবং 16+5 মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা। এই ফোনে VOOC ফাস্ট চার্জিং এর সাথে 4,045 এমএএইচ ব্যাটারি পাবেন।

Samsung Galaxy M30 : দাম শুরু 14,990 টাকা থেকে

রেডমি, রিয়েলমিদের মতো চীনা স্মার্টফোন কোম্পানিকে আটকাতে স্যামসাং এর এবারের বাজি ছিল গ্যালাক্সি M সিরিজ। কোনো সন্দেহ নেই স্যামসাং গ্যালাক্সি M সিরিজ রেডমিদের আটকাতে সফল। এই সিরিজের সবচেয়ে জনপ্রিয় ফোন হলো Samsung Galaxy M30 । এই ফোনে পাবেন একটি 6.38 ইঞ্চির সুপার অ্যামোলেড ইনফিনিটি U ডিসপ্লে। এটির স্ক্রিন রেজল্যুশন হবে 1080 × 2220 পিক্সেল। ফোনটিকে প্রায় বেজেললেসই বলা চলে। নতুন এই স্মার্টফোনটিতে আছে 4 জিবি/ 6 জিবি র‌্যাম এবং 128 জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ। ফোনটি চলে স্যামসাং এর নিজস্ব এক্সিনোস 7908 অক্টা-কোর প্রসেসরের দ্বারা। এই ফোনটির অপারেটিং সিস্টেম অ্যান্ড্রয়েড 8.0 ওরিও এবং সাথে স্যামসাংয়ের এক্সপিরিয়েন্স ইউআই দেওয়া হয়েছে।

এছাড়া ফোনটিতে আছে একটি ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ। যার প্রধান ক্যামেরাটি 13 মেগাপিক্সেলের (f/ 1.9), দ্বিতীয়টি 5 মেগাপিক্সেলের(f/ 2.2) এবং তৃতীয়টি 5 মেগাপিক্সেলের (f/2.2) । তৃতীয় লেন্সটি হবে একটি ওয়াইড অ্যাঙ্গেল লেন্স। এছাড়াও সামনে একটি 16 মেগাপিক্সেলের (f/ 2.0) সেলফি ক্যামেরা দেওয়া হয়েছে। ফোনটিতে আছে একটি 5000 এমএএইচ এর বিশাল ব্যাটারি যা 15 ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট সহ।

Asus Zenfone Max Pro M2 : দাম শুরু 12,999 টাকা থেকে

এই ফোনটি এই লিস্টের একমাত্র ফোন যেটি 2018 সালে লঞ্চ হয়েছিল। Asus Zenfone Max Pro M2 ফোনে 6.26 ইঞ্চির একটি IPS LCD স্ক্রিন দেওয়া হয়েছে যার আসপেক্ট রেশিও 19:9 এবং স্ক্রিন রেজল্যুশন 1080×2280 পিক্সেল।এই বেজেললেস স্ক্রিনটির পিক্সেল ঘনত্ব 403 PPI ও স্ক্রিন টু বডি রেশিও 81.64%। এই স্ক্রিনে গোরিলা গ্লাস 6 ব্যবহার করা হয়েছে।এই স্মার্টফোনটি তিনটি স্টোরেজ বিকল্পের সাথে লঞ্চ হয়েছে- 3 জিবি র‌্যাম + 32 জিবি স্টোরেজ, 4 জিবি র‌্যাম + 64 জিবি স্টোরেজ এবং 6 জিবি র‌্যাম + 64 জিবি স্টোরেজ।প্রসেসরের কথা বললে এই ফোনে অক্টা কোর 64 বিট স্ন্যাপড্রাগন 660 প্রসেসর দেওয়া হয়েছে যার স্পিড 1.95 গিগাহার্ত্জ।

ফটোগ্রাফির জন্য এই স্মার্টফোনে ডুয়াল রিয়ার ক্যামেরা আছে যার প্রধান টি 12 মেগাপিক্সেল ও অপরটি EXMOR-RS CMO সেন্সরের সাথে 5 মেগাপিক্সেল। এই ক্যামেরায় অটোফোকাস, ফেস ডিটেকশান, HDR মোড রয়েছে। পিছনের ক্যামেরায় LED ফ্ল্যাশ ও রয়েছে। সামনে 13 মেগাপিক্সেল এর 2.0 অ্যাপারচার এর লেন্স ব্যবহার করা হয়েছে। আপনি এতে 1920X1080 পিক্সেল @30fps ভিডিও রেকর্ডিংও করতে পারবেন।

আসুস জেনফোন ম্যাক্স প্রো M2 ফোনে কোয়ালকম কুইক চার্জের সাথে 5000 mAh এর ব্যাটারি আছে যেটি আপনাকে 40 ঘন্টার 3G কলিং টকটাইম দেবে। এই স্মার্টফোনটিতে আপনি OTG কেবিল সাপোর্ট পাবেন। এতে মাইক্রো ইউএসবি 2.0 পোর্ট এবং ব্লুটুথ ভার্সান 5.0 দেওয়া হয়েছে।

পড়ুন : দশ হাজার টাকার মধ্যে সেরা ফোনগুলির তালিকা দেখে নিন

সব খবর পড়তে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে যুক্ত হোন – এখানে ক্লিক করুন

টেক ভিডিও দেখার জন্য আমাদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন – এখানে ক্লিক করুন

সব খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে যুক্ত হোন – এখানে ক্লিক করুন