আপনিও যদি দিনরাত সোশ্যাল মিডিয়ায় পড়ে থাকেন তবে আপনার জন্য একটি ভালো খবর আছে। সম্প্রতি সামনে আসা একটি গবেষণায় দেখা গেছে অধিক সময় হোয়াটসঅ্যাপে কাটানো স্বাস্থ্যের জন্য ভালো। এই গবেষণার রিপোর্ট ইন্টারন্যাশনাল জার্নাল অফ হিউম্যান কম্পিউটার স্টাডিজ এ প্রকাশিত হয়েছে। রিপোর্টে বলা হয়েছে যে টেক্সট ম্যাসেজিং অ্যাপের গ্রুপে আরো চ্যাটিং করার ফলে ইতিবাচক মানসিক প্রভাব পড়েছে।

আপনাকে জানিয়ে রাখি এই পরীক্ষাটি অনলাইন চ্যাটিং এর মানসিক প্রভাবের উপর করা হয়েছিল। গবেষণায় এই বিষয়টা সামনে এসেছে যে, হোয়াটসঅ্যাপে বেশি সময় সক্রিয় ব্যক্তি বাস্তবে একাকীত্ব অনুভব করে না। রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে যে সামাজিক মিডিয়াতে বন্ধুর এবং পরিবারের সাথে চ্যাট করে মানুষ তাদের অনেক কাছে আছে এই অনুভব করে।

এই রিপোর্ট সম্পর্কে এজ হিল ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক লিন্ডা কাই বলেন, ‘সোশ্যাল মিডিয়াকে নিয়ে সব রকমের মতামত সামনে আসে যে এটা স্বাস্থ্যের জন্য ভাল না খারাপ। যদিও আমরা যেমন ভাবি তেমন কিন্তু নয়। গবেষণায় আমরা খুঁজে পেয়েছি যে সামাজিক মিডিয়ায় বেশি সময় ব্যয় করে ব্যবহারকারীরা নিজের বন্ধুদের এবং পরিবারের নিকটবর্তী হয়। এভাবে তাদের সম্পর্কের দৃঢ়তা আসে।’

গবেষণায় এটাও বলা হয়েছে যে এতে চ্যাটিং গ্রুপের সবচেয়ে বড় ভূমিকা রয়েছে। কারণ একটি গ্রুপে অনেক ধরনের মানুষ থাকে, যাদের সাথে মানুষ সব রকমের কথা বলে। এই গবেষণা 200 জন লোকের মধ্যে করা হয়েছিল এবং এতে অন্তর্ভুক্ত ছিল 158 জন মহিলা এবং 42 জন পুরুষ।

পড়ুন : হোয়াটসঅ্যাপের এই নতুন 5টি ফিচার আপনাকে চমকে দেবে

সব খবর পড়তে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে যুক্ত হোন – এখানে ক্লিক করুন

টেক ভিডিও দেখার জন্য আমাদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন – এখানে ক্লিক করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here