ড্রোনে করে বিভিন্ন দেশে কিভাবে ভ্রমণ করবেন

0
201

কোন নতুন দেশে ড্রোন নিয়ে ভ্রমণ করা একটি ঝুঁকিপূর্ণ কাজ ।বহু দেশে এই যন্ত্রটি নিষিদ্ধ এবং দেশ অনুযায়ী এই যন্ত্রটির বিষয়ে নানান নিয়ম আছে । ড্রোন ফটোগ্রাফার, ভ্রমণ সংক্রান্ত লেখক, ভিডিও নির্মাতাদের জন্য একটি প্রয়োজনীয় জিনিস, যা তাদের নিজের নিজের পেশায় সাহায্য করে। এছাড়াও ড্রোন জঙ্গল, হাইওয়ে ,মরুভূমি এবং অন্যান্য স্থানে দিক নির্দেশ করতে খুব সহায়ক।

যদিও ড্রোনের উপযোগিতা অনেক তবুও কিছু দেশের কিছু স্থানে তাদের গোপনীয়তা সংক্রান্ত নিয়ম-এর জন্য এটি নিষিদ্ধ ।এর জন্য প্রত্যেকটি স্থানে যেখানে এই “ড্রোন নিষিদ্ধ” চিহ্নটি দেখে নেওয়া খুবই গুরুত্বপূর্ণ ।অর্থাৎ ড্রোন নিয়ে কোথাও ভ্রমণের আগে ভালো করে সেখানকার আইন জেনে নেওয়া উচিত । এগুলি হল কিছু কিছু নিয়ম যা একটি আন্তর্জাতিক ভ্রমণের সময় ড্রোন সঙ্গে নিয়ে যাওয়া এবং তা আকাশে উড়ানোর আগে জেনে নেওয়া উচিত।

ড্রোনের নিয়ম:

ড্রোন এখন সারাবিশ্বে ভ্রমণের জন্য খুবই জনপ্রিয় একটি যন্ত্র এবং যদি আপনি একটি নতুন দেশ ভ্রমণের জন্য পরিকল্পনা করেন তবে তার আগে আপনাকে ড্রোনের বিষয়ে সব কটি আইন ভালোভাবে জেনে নিতে হবে। ড্রোনটি আকাশে ওড়ানোর আগে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে অনুমতি নেওয়া আপনার দায়িত্ব এবং মনে রাখবেন”No fly zone”-এ ড্রোন ওড়ানো নিষেধ। উদাহরণস্বরূপ ভারতের বিমানবন্দরগুলি, আন্তর্জাতিক সীমান্ত, দিল্লির বিজয় চক ,প্রতিটি রাজ্যের সম্পাদকীয় ভবন, মিলিটারি অন্তর্ভুক্ত এলাকাগুলি হল “নো ফ্লাই জোন”।

আপনার ড্রোনটিকে সব সময় চেক-ইন লাগেজে রাখবেন, কেবিন লাগেজে নয় এবং ড্রোনে ব্যাটারি ঢুকিয়ে রাখবেন না । বিমান সংযোগের নিয়ম -এর জন্য ড্রোনের লিথিয়াম পলিমার ব্যাটারিগুলিকে আপনার কেবিন লাগেজে রাখুন। এছাড়াও আপনি একটি অগ্নিনির্বাপক চার্জিং ব্যাগ নিতে পারেন।

ড্রোনের আকার:

যেহেতু কোথাও ভ্রমণের জন্য আপনাকে ড্রোন ছাড়াও আরো অনেক জিনিস বহন করতে হয় সেহেতু বড় ড্রোন নিয়ে যাওয়া সমস্যার কারণ হতে পারে। এইজন্য একটি বড় ড্রোনের চেয়ে একটি ছোট স্থানান্তরযোগ্য ড্রোন ব্যবহার করা বুদ্ধিমানের কাজ।

অতিরিক্ত ব্যাটারি:

এছাড়াও ভ্রমণের জন্য ড্রোন নিয়ে গেলে অবশ্যই অতিরিক্ত ব্যাটারি রাখা প্রয়োজন কারণ ড্রোনের ব্যাটারি ব্যাকআপ খুব কম এবং তা চার্জ হতে অনেক সময় লাগে। সুতরাং অতিরিক্ত ব্যাটারি রাখা লাভজনক।

জনবহুল স্থানে ড্রোন উড়ানো উচিত নয়:

যেখানে মানুষ কিছু কারণে জামায়েত রয়েছে সেখানে ড্রোন উড়ানো উচিত নয় । এটি উড়ানোর জন্য যতটা পারা যায় খালি স্থানে উড়ানো উচিত কারণ এটি একটি মেশিন এবং এটি খারাপ হতে পারে । তাই নিরাপত্তার কারণে ফাঁকা স্থানে ড্রোন উড়ানো উচিত। এগুলি হল কিছু টিপস যা ড্রোন নিয়ে বিদেশে ভ্রমণ করতে হলে আপনার মাথায় রাখা উচিত।

এটি একটি স্বস্তির কারণ যে ভারতের আইন অনুযায়ী যে কেউ ভারতের আকাশে ড্রোন ওড়াতে পারে এবং এটি সত্যিই একটি খুশির কারণ যে “ভারতীয় ড্রোন নিয়মে” এটি অনুমতি প্রদত্ত।

পড়ুন : জীবনের খোঁজে শনি গ্রহে ড্রোন পাঠাচ্ছে নাসা

সব খবর পড়তে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে যুক্ত হোন – এখানে ক্লিক করুন

টেক ভিডিও দেখার জন্য আমাদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন – এখানে ক্লিক করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here