রিলায়েন্স জিও আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করলো আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যে তাদের ট্যারিফ প্ল্যানের মূল্য বাড়ানো হবে। কিছুদিন আগেই কোম্পানি অন্য নেটওয়ার্কে কল করার জন্য আইইউসি চার্জ নেওয়ার কথা জানিয়েছিল। এবার সমস্ত প্ল্যানের দাম বাড়ানো হবে বলে বিবৃতি দেওয়া হয়েছে। এর আগে গতকাল ভোডাফোন ও এয়ারটেল ও জানিয়েছিল আগামী ১ লা ডিসেম্বর থেকে তাদের সমস্ত প্ল্যানের দাম বাড়বে।
রিলায়েন্স জিওর এই মুহূর্তে গ্রাহক সংখ্যা ৩৪৮ মিলিয়ন। কিন্তু সস্তায় প্ল্যান অফার করার কারণে কোম্পানি প্রায় প্রতিমাসেই বড়সড় লোকসানের সম্মুখীন হচ্ছে। সেপ্টেম্বর মাসে কোম্পানির প্রতি কাস্টমার পিছু গড়ে আয়ের পরিমান ৩ শতাংশ কমে ১১৮ টাকায় ঠেকেছে, যা এয়ারটেল ও ভোডাফোনের থেকেও কম। এই পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার জন্য কোম্পানি এয়ারটেল ও ভোডাফোনের ঘোষণার পর তাই নিজেদেরও প্ল্যানের মূল্য বাড়ানোর কথা জানিয়েছে।
টেলিকম মার্কেটে অস্থিরতা :
জিও এর আগে বলেছিল যে, জিও নেটওয়ার্কে আউটগোয়িং এবং ইনকামিং কলের অনুপাত অন্যদের তুলনায় অনেক বেশি। ২০১৭ সালের এপ্রিলে যখন আইইউসি প্রয়োগ করা হয়েছিল, তখন জিও নেটওয়ার্ক থেকে ৯০% আউটগোয়িং কল হতো এবং ১০ শতাংশ ইনকামিং কল হতো । সে কারণেই ট্রাই BAK লাগু করার জন্য ৩১ ডিসেম্বর ২০১৯ এর সময়সীমা নির্ধারণ করেছিল। কারণ তারা মনে করেছিল আইইউসি চার্জ লাগু থাকলে বাজারে স্থিতিশীলতা বজায় থাকবে। কিন্তু দেখা যায় আইইউসি লাগু থাকলেও কোম্পানিগুলো লাভ মুখ দেখতে পাচ্ছেনা। সেই কারণেই প্ল্যানের দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।
গ্রাহকদের জন্য আলাদা IUC প্যাক :
আসলে একটি টেলিকম নেটওয়ার্ক থেকে দ্বিতীয় নেটওয়ার্কে কল করার জন্য ট্রাই নির্ধারিত একটি চার্জ দ্বিতীয় কোম্পানিকে দিতে হয় । যে নেটওয়ার্ক থেকে অন্য নেটওয়ার্কে আউটগোয়িং কল করা হয় তাকে অন্য নেটওয়ার্কে এই আইইউসি ফি দিতে হয়। একেই বলা হয়ে আইইউসি চার্জ। টেলিকম রেগুলেটরি অথরিটি অফ ইন্ডিয়া (ট্রাই) ২০১৭ সালে আইইউসি চার্জ বাবদ প্রতি মিনিটে ৬ পয়সা ধার্য করেছিল। তখন ট্রাই এও নির্ণয় নিয়েছিল যে ১লা জানুয়ারী ২০২০ সাল থেকে এই চার্জ শুন্য করে দেওয়া হবে । কিন্তু এখন এয়ারটেল ও ভোডাফোন চাইছে আরো কিছু বছর আইইউসি চার্জের মেয়াদ বাড়ানো হোক। এরফলে জিওকে বাধ্য হয়ে আলাদা ভাবে আইইউসি প্যাক আনতে হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here