আগামী ডিসেম্বর মাস থেকে প্রাইভেট এবং কমার্শিয়াল যানবাহনের মালিকদের দ্বিগুণ টোল ট্যাক্স দিতে হবে যদি তাদের গাড়িতে FASTags না থাকে। সরকার সারাদেশে জুড়ে রাস্তার ট্রাফিক জ্যামকে কমানোর জন্য ইলেক্ট্রনিক টোল ট্যাক্স কালেকশনের ব্যবস্থা করেছে, যার জন্য এই FASTags ব্যবস্থা চালু করা হয়েছে।
এই FASTags আসলে কি?
FASTag হল প্রিপেড রিচার্জেবল ট্যাগ যেগুলি আপনারা টোল ট্যাক্স কালেকশন এর সময় ব্যবহার করতে পারেন অটোমেটিক পেমেন্ট করার জন্য। এগুলি সাধারণত আপনার গাড়ির উইন্ডস্ক্রিনে লাগানো থাকবে। এই রেডিও ফ্রিকোয়েন্সি আইডেন্টিফিকেশন টেকনোলজি যুক্ত ট্যাগগুলি লাগানো থাকলে আপনার গাড়িকে টোলপ্লাজাতে দাঁড়িয়ে থাকতে হবে না, যখনই আপনি টোলপ্লাজা অতিক্রম করবেন আপনার FASTag এর সাথে লিংক করা ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা কেটে নেওয়া হবে।
কিভাবে FASTag কিনবেন এবং অ্যাক্টিভেট করবেন-
এই ট্যাগগুলি ইস্যু করা হয় ভারতের সর্বমোট ২২ টি ‌ ব্যাংকের বিভিন্ন চ্যানেলের মাধ্যমে যেমন পয়েন্ট অফ সেল ( পিওএস ) যেকোনো জাতীয় সড়কের টোলপ্লাজা এবং নির্বাচিত কয়েকটি ব্রাঞ্চ থেকে। এছাড়াও আপনারা আমাজন এর মত ই কমার্স প্ল্যাটফর্ম থেকেও FASTags কিনতে পারেন তবে সেরম হলে আপনাকে আগে টোলপ্লাজায় গিয়ে সেটিকে অ্যাক্টিভেট করাতে হবে।
কিভাবে আপনারা এ কাজটি করবেন-
FASTag অ্যাক্টিভেট করানোর দুটি রাস্তা রয়েছে।
১. নিজে থেকে বা সেল্ফ অ্যাক্টিভেশন- পিওএস টার্মিনাল অথবা অনলাইন প্ল্যাটফর্ম থেকে FASTag কেনার সময় নির্দিষ্ট কোন ব্যাংক এর প্রয়োজন আপনার হবে না। তবে অনলাইন থেকে যদি আপনি FASTag ক্রয় করেন তাহলে আপনি সেটিকে নিজে থেকে এক্টিভেট করতে পারবেন যার জন্য আপনাকে ‘My FASTag’ মোবাইল অ্যাপে নিজের গাড়ির নম্বর ভরতে হবে। এই অ্যাপটি আপনারা ‘অ্যাপল স্টোর’ এবং ‘গুগল প্লে স্টোর’ থেকে ডাউনলোড করতে পারেন।
এছাড়াও NHAI একটি প্রিপেইড ওয়ালেট ফেসিলিটিও রেখেছে My FASTag অ্যাপের জন্য যাতে আপনি নিজের সময়মত টাকা ভরে রাখতে পারেন, তারপর টোল প্লাজা অতিক্রম করলে আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্টের বদলে আপনার মোবাইল অ্যাপটি থেকে টাকা কেটে নেওয়া হবে।
২. এই পদ্ধতিতে আপনাকে যেকোনো একটি ব্যাংকের শাখায় যেতে হবে যারা FASTag ফ্যাসিলিটি আপনাকে দিতে পারবে এবং সেখান থেকে আপনি আপনার FASTag কিনে আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্টের সঙ্গে লিঙ্ক করতে পারেন।
একটিভেট করানোর সময় আপনাকে কেওয়াইসি বা নো ইওর কাস্টমার ডকুমেন্টেশন জমা দিতে হবে সেই ব্যাংকের ব্রাঞ্চে।
কিভাবে রিচার্জ করবেন আপনার FASTag-
যদি আপনার FASTag আগে থেকেই ব্যাংক অ্যাকাউন্টের সঙ্গে লিঙ্ক করানো থাকে তাহলে আপনাকে বারবার টাকা ভরতে হবে না, ব্যাংকের অ্যাকাউন্টে পর্যাপ্ত টাকা রাখলেই হবে। কিন্তু যদি আপনি FASTag প্রিপেইড ওয়ালেটের মাধ্যমে ব্যবহার করেন তাহলে আপনি এটিকে ইউপিআই/ডেবিট কার্ড/ক্রেডিট কার্ড/এন ই এফ টি/নেট ব্যাঙ্কিং এর মাধ্যমে আপনার ওয়ালেটকে রিচার্জ করতে পারেন।
সর্বাধিক ব্যালেন্সের সীমা –
যদি আপনার FASTag এর সম্পূর্ণ কেওয়াইসি না জমা দেওয়া থাকে তাহলে আপনার FASTag ওয়ালেটের সর্বাধিক টাকার মাত্রা হবে ২০,০০০। এমনকি আপনি প্রতিমাসে সর্বাধিক ২০,০০০ টাকাই আপনার ওয়ালেটে ভরতে পারবেন।
আর যদি আপনার FASTag অ্যাকাউন্টে সম্পূর্ণ কেওয়াইসি জমা দেওয়া থাকে তাহলে আপনি সর্বাধিক ১ লক্ষ-টাকা অবধি আপনার প্রিপেইড ওয়ালেটে ভরতে পারেন তবে এক্ষেত্রে কোন মাসিক রিলোডের সীমা নেই।
বাড়ি টোল প্লাজা থেকে ১০ কিলোমিটারের মধ্যে হলে পাবেন ছাড়-
যদি আপনার বাড়ি কোন একটি টোল প্লাজার ১০ কিলোমিটারের মধ্যে হয় তাহলে আপনি সেই টোলপ্লাজা থেকে কিছু টাকা ‌ ছাড় পাবেন। তার জন্য আপনাকে আপনার বাসস্থানের প্রমানপত্র ব্যাংকে এবং পিওএস লোকেশনে জমা করতে হবে। তারপরে আপনি সেই টোল প্লাজা থেকে কিছু টাকা ছাড় পেয়ে যাবেন।
যখন আপনি কোন টোলপ্লাজা অতিক্রম করবেন তখন কি হবে-
FASTag অ্যাক্টিভেট করা অবস্থায় যেকোনো  টোলপ্লাজা অতিক্রম করলে আপনার লিঙ্ক করা ব্যাংক অ্যাকাউন্ট অথবা ওয়ালেট থেকে টোল ট্যাক্স কেটে নেওয়া হবে এবং আপনার ফোনে একটি এসএমএস নোটিফিকেশন পৌঁছে যাবে।
যদি FASTag না থাকে
আপনার গাড়িতে তখন কি হবে-
১ ডিসেম্বর থেকে যদি আপনার গাড়িতে এই FASTag না লাগানো থাকে তাহলে আপনাকে সাধারণের দ্বিগুণ টোল ট্যাক্স ক্যাশে পেমেন্ট করতে হবে। আপনাকে কি কি নিয়ে যেতে হবে FASTag কেনার সময়ে-
আপনাকে শুধু আপনার নো ইওর কাস্টমার ডকুমেন্টস নিয়ে যেতে হবে ব্যাংকের পিওএস লোকেশনে, যেমন গাড়ির RC, আপনার পরিচয়পত্র, বাসস্থানের প্রমাণ, এবং একটি পাসপোর্ট সাইজের ফটো। অবশ্যই এই ডকুমেন্টগুলির অরিজিনাল এর পাশাপাশি একটি করে জেরক্স কপি নিয়ে যাবেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here