ইন্টারনেটে পর্ন কনটেন্ট নিষিদ্ধ করা সরকারের জন্য একটি চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে। গত বছরের অক্টোবরে ভারত সরকার পর্নহাব সহ ৮৫৭ টি পর্ন সাইট নিষিদ্ধ করেছিল। যদিও সরকারের এই সিদ্ধান্তে যে জনগণ খুশি হয়নি তা সম্প্রতি প্রকাশিত রিপোর্টে পরিষ্কার। Top10VPN এর এই রিপোর্টে বলা হয়েছে সরকারের তরফে পর্ন সাইট ব্যান করার পর মানুষ এখন ভিপিএন (ভার্চুয়াল প্রাইভেট নেটওয়ার্ক) এর মাধ্যমে পর্ন ওয়েবসাইট ভিজিট করছেন।
হাইকোর্টের আদেশে ব্যান করা হয়েছিল :
হাইকোর্টের আদেশের পরে সরকার ৮৫৭ টি পর্ন ওয়েবসাইট নিষিদ্ধ করেছিল এবং জানিয়েছিল পর্ন সাইটের কনটেন্ট অনৈতিক এবং অশ্লীল। এর পরে ডিপার্টমেন্ট অফ টেলিকমিউনিকেশন দেশের শীর্ষস্থানীয় ইন্টারনেট পরিষেবা সরবরাহকারীদের কাছে একটি চিঠি লিখে তাদের এই ওয়েবসাইটগুলিতে অ্যাক্সেস বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছিল।
ব্যান ওয়েবসাইটে অ্যাক্সেস বেড়েছে ৪০৫ গুন :
সামনে আসা এই রিপোর্টে বলা হয়েছে, সরকারের তরফে পর্ন ওয়েবসাইট নিষিদ্ধ করার পর ভিপিএন এর মাধ্যমে এই ওয়েবসাইট ভিজিট ৪০৫ গুন্ বেড়েছে। অক্টোবর ২০১৮ থেকে অক্টোবর ২০১৯ এর এই রিপোর্টে দেখা গেছে ৫ কোটি ৭০ লক্ষ মানুষ ভিপিএন এর মাধ্যমে পর্ন ওয়েবসাইট ভিজিট করেছে।
ফ্রি ভিপিএন অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করে :
রিপোর্টে বলা হয়েছে যে, ভারতের বেশিরভাগ মানুষ ফ্রি ভিপিএন ব্যবহার করেন।  এই কোম্পানিগুলো ব্যবহারকারীর ডেটা বিক্রি করে অর্থ উপার্জন করে। রিপোর্টে উঠে এসেছে, দেশের ১ কোটি ১০ লক্ষ ব্যবহারকারী ফ্রি টার্বো ভিপিএন ব্যবহার করেন। আবার ৭০ লক্ষ ব্যবহারকারী সলো ভিপিএন এবং হটস্পট শিল্ড ফ্রি পছন্দ করেন। পেইড সার্ভিসের কথা বললে, ১ কোটি ৮০ লক্ষ মানুষ এক্সপ্রেস ভিপিএন ব্যবহার করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here