বিশ্বের জনপ্রিয় টেক কোম্পানি মাইক্রোসফ্ট ভারতের SRL ডায়াগনস্টিক্সের সহযোগিতায় জরায়ু ক্যান্সার দ্রুত নির্ণয়ের জন্য তৈরী করলো একটি নতুন এআই টুল । জাতীয় ক্যান্সার সচেতনতা দিবসে মাইক্রোসফ্ট গতকাল এই ঘোষণা করেছে। আপাতত এই এআই-চালিত জরায়ু ক্যান্সার স্ক্রিনিং এপিআই কে এসআরএল ডায়াগনস্টিক্স সেন্টারে টেস্ট করা হচ্ছে। । বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (WHO) রিপোর্ট অনুযায়ী, সারাবিশ্বের মহিলাদের যেসব ক্যান্সার সবচেয়ে বেশি হতে দেখা যায়, তাদের মধ্যে জরায়ু ক্যান্সার হলো চতুর্থ। সারাবিশ্বের মধ্যে ভারতে এই রোগে আক্ৰান্তর সংখ্যা ১৬ শতাংশ।
জরায়ু ক্যান্সার দেশের সেইসমস্ত অনুন্নত এলাকায় খুব বেশি দেখা যায়, যেখানে সাক্ষরতা এবং সচেতনতার অভাব আছে। দুইভাবে এর প্রকোপ হ্রাস করা যেতে পারে – এফেক্টিভ স্ক্রীনিং ও আর্লি ডিটেকশন। ভারতের বৃহত্তম ডায়াগনস্টিক্স ল্যাবরেটরি কোম্পানি SRL ডায়াগনস্টিক্স সেকারণে চায় জরায়ু ক্যান্সারের স্ক্রিনিংয়ের উপর জোর দিতে। প্যাথলজিতে এআই নেটওয়ার্ক তৈরির জন্য মাইক্রোসফট ও এসআরএল ২০১৮ সাল থেকে একসঙ্গে কাজ করছে। এটি সাইটোপ্যাথোলজিস্ট এবং হিস্টোপ্যাথোলজিস্টদের কাজ সহজ করার জন্য ডিজাইন করা হয়েছে।
ডাক্তার Arnab Roy জানিয়েছেন, ভারতে সাইটোপ্যাথোলজিস্টের অনুপাত রোগীদের সংখ্যার তুলনায় খুব কম। তিনি বলেন, ‘আমরা বছরে ১,০০,০০০ লক্ষের বেশি এই রোগের নমুনা পাই, যার মধ্যে ৯৮ শতাংশ থাকে সাধারণ নমুনা এবং ২ শতাংশ নমুনা থাকে জটিল।’ এতদিন সাইটোপ্যাথোলজিস্টের অনুপাত কম থাকায় তারা সাধারণ নমুনা পরীক্ষা করতে করতেই জটিল নমুনাগুলো পরীক্ষা করার সময় পাচ্ছিলেন না। তবে নতুন এই এআই টুল নরমাল স্যাম্পেল কে পরীক্ষা করতে পাড়ায় সাইটোপ্যাথোলজিস্টরা এবার থেকে জটিল নমুনাগুলোকে পরীক্ষা করতে পারবে।
মাইক্রোসফট যথেষ্টই আশাবাদী নতুন এই এআই টুলকে নিয়ে। মাইক্রোসফট থেকে এবিষয়ে বলা হয়েছে, তারা ইতিমধ্যেই নতুন এআই টুলের রেজাল্ট পেতে শুরু করেছে। এই টুল খুব সহজেই সাধারণ নমুনা ও জটিল নমুনাগুলোকে শ্রেণীবিভক্ত করে। ফলে সাইটোপ্যাথোলজিস্টরা বেশি সময় জটিল নমুনাগুলো পরীক্ষা করার জন্য দিতে পারবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here