হায়দ্রাবাদে একজন পশুচিকিৎসক কে ধর্ষণ এবং তাকে জঘন্যভাবে পুড়িয়ে হত্যার করার ঘটনা আমাদের মনে আজও তাজা। শুধু হায়দ্রাবাদে নয়, খবর কাগজ খুললেই এইধরণের আরও অনেক ঘটনা সামনে আসে। কিন্তু এর থেকে নিস্তার কোথায় ও কিভাবে তা নিয়েই উদ্বিগ্ন মানুষ। হায়দ্রাবাদের ঘটনার পর একটি অ্যাপের দ্রুত ডাউনলোড বেড়েছে। এই অ্যাপের নাম সুরক্ষা (SURAKSHA-Bengaluru City Police), যেটি লঞ্চ করেছে বেঙ্গালুরু পুলিশ। আপনি গুগল প্লে স্টোর থেকে এই অ্যাপটি বিনামূল্যে ডাউনলোড করতে করা যায় । সুরক্ষা অ্যাপটির সাইজ ৫.৮ এমবি। আপাতত ১.৩ লক্ষ মানুষ এই অ্যাপটিকে ডাউনলোড করেছে।
বেঙ্গালুরু পুলিশের জেলা প্রশাসক কুলদীপ জৈন জানিয়েছেন যে, গ্যাংরেপের পরে এই অ্যাপটির ডাউনলোড কয়েকগুন বেড়েছে। পুলিশের দাবি, সুরক্ষা অ্যাপটিতে সাহায্য চাওয়ার মাত্র সাত সেকেন্ডের মধ্যে পদক্ষেপ নিচ্ছে তারা। এ জন্য নগরীর সমস্ত থানায় দুজন টহল গাড়ি মোতায়েন করা হয়েছে, যারা এই অ্যাপে আসা জরুরি কলে তাত্ক্ষণিক পদক্ষেপ নেবে।
যে কেউ সুরক্ষা অ্যাপ ব্যবহার করতে পারেন :
‘সুরক্ষা’ অ্যাপটি মহিলা, পুরুষ বা যে কেউ ব্যবহার করতে পারবেন এবং জরুরি অবস্থার জন্য সাহায্য চাইতে পারেন। এই অ্যাপটির ফিচার ও ব্যবহারের কথা বললে, প্রথমে আপনাকে এই অ্যাপটিতে আপনার নাম এবং মোবাইল নম্বর দিয়ে এন্টার করতে হবে । এর পরে ওটিপি যাচাই করতে হবে। এর পরে আপনাকে একটি ইমার্জেন্সি নম্বর সেভ করতে হবে যাতে আপনার পরিবারের সদস্যদের কোনও সমস্যায় যোগাযোগ করা যায়।
এই অ্যাপে SOS লাল ও সবুজ দুটি বোতাম দেওয়া হয়েছে। জরুরী পরিস্থিতিতে, এসওএস লাল বোতাম প্রেস করতে হবে, আবার বাতিল করতে চাইলে এসওএস সবুজ বোতামে প্রেস করতে হবে। এই অ্যাপের মাধ্যমে আপনি ১০ সেকেন্ড পর্যন্ত ভিডিও ও পুলিশ কে পাঠাতে পারবেন। জরুরী বোতামটি সক্রিয় করতে ফোনের পাওয়ার বোতামটি পরপর ৫ বার টিপতে হবে। এই অ্যাপে রিয়েল টাইম জিপিএস ট্র্যাকারও রয়েছে যার সাহায্যে পুলিশ জানতে পারবে আপনি এই মুহূর্তে কোথায় অবস্থান করছেন ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here