গত দু’বছর ধরে যে টেকনোলজির কথা সবচেয়ে বেশি চর্চা হচ্ছে তাহলে 5G, অর্থাৎ টেলিকম টেকনলজির পঞ্চম জেনারেশন। সারা বিশ্বের হাতে গোনা কয়েকটা দেশে আপাতত চালু হয়েছে 5G । যদিও ভারতে এখনো এই টেকনোলজি আসেনি। তবে ভারত সরকার এই নতুন জেনারেশন আনার জন্য টেলিকম কোম্পানি গুলোর সাথে কাজ করছে বলে বেশ কয়েকটি রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে।
আপনাকে জানিয়ে রাখি ৫জি চালু করার জন্য যে কোন দেশে একটা উন্নত ইনফ্রাস্ট্রাকচার প্রয়োজন। যা ভারত সরকার তৈরির চেষ্টায় আছে। এই খবর জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রবি শংকর প্রসাদ।
সংসদের চলা শীতকালীন অধিবেশনে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বলেছেন 5G এর কারণে সুরক্ষা বিঘ্নিত হবে এমন কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি। প্রসঙ্গত কিছু মাস আগে একটি কোম্পানি দাবি করেছিল, যে সমস্ত দেশে ৫জি চালু করা হবে সেই সমস্ত দেশের সুরক্ষা বিঘ্নিত হবে। এরপরে বেশ কয়েকটি দেশ 5G টেকনোলজি চালু করতে দ্বিমত পোষণ করে। যদিও ভারত যে এই দাবিকে সমর্থন করে না তা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী এদিন স্পষ্ট করেছেন।
সুরক্ষার প্রশ্নে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী সংসদে বলেছেন, অন্য দেশের তুলনায় ভারতের পরিস্থিতি ভিন্ন। সেকারণে ভারত তার সুরক্ষার কথা মাথায় রেখে যে কোনও প্রযুক্তি গ্রহণ করতে পারে। তিনি আরও বলেছেন, 5G স্পেকট্রামের জন্য আবেদনের সময় এই সমস্ত দিক বিবেচনা করা হবে। আপনাকে জানিয়ে রাখি ২০১৭ সালে ৫জি এর জন্য গঠিত উচ্চ স্তরের কমিটি ২০১৮ এর আগস্ট মাসে তাদের রিপোর্ট জমা দিয়েছে। এই প্রতিবেদনের ভিত্তিতে, সরকার সাশ্রয়ী মূল্যের, নিরাপদ এবং কার্যকর ৫জি পরিষেবার জন্য অবকাঠামো তৈরি করছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here