আসাম, মেঘালয়ের পর এবার পশ্চিমবঙ্গেও কিছু জেলায় অনির্দির্ষ্টকালের জন্য বন্ধ করে দেওয়া হলো ইন্টারনেট পরিষেবা। দুই ২৪ পরগনা (ক্যানিং, বারুইপুর, বারাসাত এবং বসিরহাট), মুর্শিদাবাদ, মালদা, হাওড়া ও উত্তর দিনাজপুর জেলায় ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।
লোকসভায় ও রাজ্যসভায় নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পাস হওয়ার পর থেকেই দেশের বিভিন্ন অঞ্চল উত্তাল হয়ে ওঠে। আসাম সহ প্রায় গোটা নর্থইস্ট এবং পশ্চিমবঙ্গে বিক্ষোভকারীরা বিলের বিরোধিতায় ফুঁসতে থাকে। পশ্চিমবঙ্গের মালদা, মুর্শিদাবাদ, হাওড়া প্রভৃতি জেলা থেকে শনিবার পথ অবরোধ এবং বাস ভাঙচুর হওয়ার মতো ঘটনা সামনে আসে‌‌ । আন্দোলনকারীরা শনিবার বিকালে লালগোলায় পাঁচটি ট্রেনে আগুনও ধরিয়ে দেয়।
যদিও মুখ্যমন্ত্রী শুরু থেকেই আন্দোলনকারীদের শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের বার্তা দিয়েছিল। শনিবার দুপুরে সাংবাদিক বৈঠকে তিনি রাজ্যবাসীর উদ্দেশ্য বিশেষ বার্তা দিয়ে বলেন, সাধারণ মানুষের হয়রানি করে কোন আন্দোলন নয় । আইন কেউ নিজের হাতে তুলে নেবেন না। অন্যথায় সরকার সেই সমস্ত আন্দোলনকারীর বিরুদ্ধে জনসম্পতি সুরক্ষা আইনের আওতায় মামলা করবে।
কিন্তু এরপরও উত্তেজিত জনতা রেলের বিভিন্ন প্লাটফর্মে ঢুকে কাউন্টারে আগুন লাগায় এবং ভাঙচুর চালায়। এমনকি ইন্টারনেটে হিংসাত্মক ছবি ছড়িয়ে দেওয়া হয়। যারপর সরকার পক্ষ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয় নিষেধ সত্ত্বেও রাজ্যে বহিরাগতদের দ্বারা বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি তৈরির চেষ্টা চলছে। সেকারণে মুর্শিদাবাদ, মালদহ, দক্ষিণ ২৪ পরগণার ক্যানিং ও বারুইপুর, উত্তর ২৪ পরগনার বারাসাত ও বসিরহাট, হাওড়া ও উত্তর দিনাজপুরে অনির্দিষ্টকালের জন্য ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ থাকবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here