এখনকার দিনে আমরা সবাই প্রায় দুটো সিম ব্যবহার করি। এরমধ্যে একটি সিমের নম্বর প্রাইমারি থাকে এবং উন্নতি সেকেন্ডারি। সিম কিছুটা পুরানো হলে অফার কম পাওয়ার কারণে আমরা প্রাইমারি সিমে রিচার্জ কম করি। তবে এই সিমগুলো চালু রাখার জন্য এখন স্মার্ট প্ল্যান রিচার্জ করতে হয়। এয়ারটেলের এই স্মার্ট রিচার্জ প্ল্যান শুরু হয়েছে ২৩ টাকা থেকে। আজ এই পোস্টে আমরা আপনাকে বলবো আপনার জন্য আনলিমিটেড রিচার্জ প্ল্যান নাকি স্মার্ট রিচার্জ প্ল্যান লাভজনক হবে।
এয়ারটেল ২৩ টাকা স্মার্ট রিচার্জ প্ল্যান :
কোনো এয়ারটেল গ্রাহক যদি তার নম্বর চালু রাখতে চায় তাহলে সবচেয়ে কম ২৩ টাকা রিচার্জ করতে হবে। এই প্ল্যানের ভ্যালিডিটি ২৮ দিন। যদিও এখানে কোনো ডেটা বা ভয়েস কলিং এর সুবিধা দেওয়া হবেনা। তবে আপনি ইনকামিং কলের সুবিধা ভোগ করবেন।
এয়ারটেল ৪৯ টাকা স্মার্ট রিচার্জ প্ল্যান :
এয়ারটেলের দ্বিতীয় স্মার্ট রিচার্জ প্ল্যানটি হলো ৪৯ টাকা। এখানে গ্রাহকরা ৩৮.৫৩ টাকা টকটাইম ও ১০০ এমবি ডেটা পাবে। এই প্ল্যানে প্রতি সেকেন্ডে ২.৫ পয়সা চার্জ করা হবে। এই প্ল্যানের ভ্যালিডিটি ২৮ দিন।
এয়ারটেল ৭৯ টাকা স্মার্ট রিচার্জ প্ল্যান : 
স্মার্ট রিচার্জ প্ল্যানের পরবর্তী প্ল্যান হলো ৭৯ টাকার। এই প্ল্যানের ভ্যালিডিটি ও ২৮ দিন। এখানে ৬৩.৯৫ টাকা টকটাইম ও ২০০ এমবি ডেটা দেওয়া হবে। কল চার্জ এখানেও ২.৫ পয়সা প্রতি সেকেন্ড হিসাবে নেওয়া হবে।
স্মার্ট রিচার্জ প্ল্যান ও আনলিমিটেড প্ল্যানের মধ্যে কোনটা বাছবেন ?
এই বিষয়ে বলার আগে আমাদের রিলায়েন্স জিও ও এয়ারটেলের রিচার্জ প্ল্যান সম্পর্কে জানা দরকার। উদাহরণস্বরূপ, আপনি যদি বেশি কথা বলেন এবং অন্য নেটওয়ার্কে অধিকক্ষণ ব্যস্ত থাকেন তাহলে আপনার আনলিমিটেড প্ল্যান বাছা লাভজনক। এখানে আনলিমিটেড কলিং এর পাশাপাশি ডেটা ও পাওয়া যায়।
এবার আপনি যদি কথা কম বলেন কিন্তু ডেটা বেশি ব্যবহার করেন তাহলে রিলায়েন্স জিও তে রিচার্জ করা ভালো হবে। এর কারণ হলো জিও অন্যদের থেকে কম মূল্যে 4G ইন্টারনেট ডেটা অফার করে। তবে এখানে আপনি আনলিমিটেড কলিং এর সুবিধা পাবেন না। আবার আপনি যদি খুব কম কথা বলেন এবং ডেটা প্রয়োজন হয়না বললেই চলে তাহলে স্মার্ট রিচার্জ প্ল্যান বেছে নিতে পারেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here