কয়েকমাস আগে প্রকাশিত কাউন্টারপয়েন্টের একটি রিপোর্ট অনুযায়ী, সারাবিশ্বের মধ্যে ভারতে সবচেয়ে কম মূল্যে ইন্টারনেট ডেটা পাওয়া যায়। যদিও ডিসেম্বর মাসে প্রায় সমস্ত টেলিকম কোম্পানি তাদের প্ল্যানের দাম বাড়িয়েছে, তবে এরপর ও ভারতে অন্যদেশের তুলনায় মিলছে সস্তায় ইন্টারনেট পরিষেবা । এইকারণে ভারতীয়রা ডেটা ব্যবহারের পরিমান ও বাড়িয়েছে।
তবে সম্প্রতি কিছু সময়ে ভারতের বেশকিছু রাজ্যে ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ করে দেওয়ার খবর সামনে এসেছে। যার পরেই নতুন একটি সমীক্ষায় দাবি করা হয়েছে ২০১৮ পর্যন্ত সারা বিশ্বের মধ্যে ভারতে সবচেয়ে বেশিবার ইন্টারনেট বন্ধ করা হয়েছে। এই সমীক্ষা চালিয়েছে ইন্টারনেট গবেষণা সংস্থা অ্যাক্সেস নাউ।
অ্যাক্সেস নাউ এর এই সমীক্ষায় দেখা গেছে বিশ্বব্যাপী ইন্টারনেট বন্ধের ৬৭ শতাংশ ঘটনা ভারতে ঘটে। ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ রিসার্চ অন ইন্টারন্যাশনাল ইকনমি রিলেশনস ও এই সমীক্ষাকে সমর্থন জানিয়ে বলেছে, ইন্টারনেট বন্ধের মামলায় ভারত অন্যান্য দেশের তুলনায় এগিয়ে আছে।
প্রতিদিন ১.৫ কোটি টাকা লোকসান :
কেন্দ্র বা রাজ্যের স্বরাষ্ট্রসচিব ইন্টারনেট বন্ধ করার আদেশ দিয়ে থাকেন। এর পরে, টেলিকম সংস্থাগুলি তাদের ট্রান্সমিটিং টাওয়ার থেকে সেলুলার নেটওয়ার্ক এবং মোবাইল ফোন ইন্টারনেট সার্ভিস দেওয়া সিগন্যালকে বন্ধ করে দেয়। আপনাকে জানিয়ে রাখি, এর কারণে টেলিকম কোম্পানিগুলোকে ভারী লোকসানের মুখোমুখি হতে হয়। পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ইন্টারনেট বন্ধ করার কারণে প্রতিদিন রাজ্য পিছু ১.৫ কোটি টাকা ক্ষতি হয়।
এতবার বন্ধ রাখা হয়েছে ইন্টারনেট :
অ্যাক্সেস নাউ জানিয়েছে যে চীন এবং উত্তর কোরিয়ার মতো দেশগুলি, যাদের ইন্টারনেটের উপর সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ রয়েছে, তাদের সমীক্ষায় অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি। রিপোর্ট অনুযায়ী ২০১২ সাল থেকে ভারতে এই নিয়ে ৩৭৩ বার ইন্টারনেট বন্ধ করা হলো।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here