ভারতে দিন দিন যে হারে স্মার্টফোন ব্যবহারকারীর সংখ্যা বাড়ছে, সে হারে পর্ন দেখার লোকের সংখ্যাও বৃদ্ধি পাচ্ছে। ভারত সরকার যতই পর্ন সাইট ব্যান করার উদ্যোগ নিক না কেন, রিপোর্টে পরিষ্কার মানুষ আরও বেশি পর্ন দেখাতে আসক্ত হয়ে পড়ছে। ২০১৯ সালে সারা বিশ্বের মধ্যে ভারত স্মার্টফোনে পর্ন দেখার ক্ষেত্রে শীর্ষে ছিল। সম্প্রতি প্রকাশিত এই রিপোর্টে বলা হয়েছে, ভারতের ৮৯ শতাংশ লোক ২০১৯ সালে মোবাইল ডিভাইসের মাধ্যমে পর্ন দেখেছিল। যা ২০১৭ সালের তুলনায় ৩ শতাংশ বেশি।
অ্যাডাল্ট এন্টারটেনমেন্ট সাইট পর্নহাব এর রিপোর্ট অনুযায়ী, বিশ্বব্যাপী প্রতি ৪ জনের মধ্যে ৩ জন মোবাইলে পর্ন দেখে। এরঅর্থ ডেস্কটপ এবং ল্যাপটপের মাধ্যমে মানুষ পর্ন দেখার আগ্রহ হারাচ্ছে। ২০১৯ এ পর্নহাবের মোট ভিজিটরের ৭৭ শতাংশ ছিল মোবাইল ইউজার, যা গতবছরের তুলনায় ১০ শতাংশ বেশি।
দ্বিতীয় আমেরিকা এবং তৃতীয় ব্রাজিল :
এই রিপোর্টে আরও বলা হয়েছে মোবাইলে পর্ন দেখার ক্ষেত্রে আমেরিকা ৮১% সহ দ্বিতীয় স্থানে এবং ব্রাজিল ৭৯% সহ তিন স্থানে আছে। আবার জাপানের ৭০ শতাংশ মানুষ মোবাইলের মাধ্যমে পর্নহাব ভিজিট করেছিল, যেখানে ইউকে থেকে ভিজিট করেছিল ৭৪ শতাংশ মানুষ।
২০১৩ তে এই ছিল ৪০ শতাংশ : 
পর্নহাবের ‘ইয়ার ইন রিভিউ’ রিপোর্টে প্রকাশিত হয়েছে, ২০১৩ সালে পর্নহাবের মোট ট্র্যাফিকের মধ্যে মোবাইল ট্র্যাফিকের পরিমাণ ছিল মাত্র ৪০%। পর্নহাব ছাড়াও বড় বড় পর্ন সাইটগুলিতে মোবাইলে পর্ন দেখার প্রবণতা বাড়ছে।
সস্তায় ডেটা ও স্মার্টফোনের উপলব্ধতা হলো কারণ :
সস্তার ডেটা প্ল্যান এবং প্রিমিয়াম স্মার্টফোনের দাম কমার কারণে দেশে মোবাইলে পর্ন দেখার প্রবণতা বাড়ছে বলেই ধারণা। ভারতে এই মুহূর্তে ৪৫০ মিলিয়নেরও বেশি স্মার্টফোন ব্যবহারকারী রয়েছে এবং সস্তায় ডেটা পাওয়ার কারণে তারা ধীরে ধীরে মোবাইলে ইন্টারনেট ঘাটতে আভস্ত হয়ে পড়ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here