ভারতের দ্বিতীয় বৃহত্তম টেলিকম কোম্পানি রিলায়েন্স জিও তাদের গ্রাহকদের অধিক সুবিধা দেওয়ার লক্ষ্যে ওয়াইফাই কলিং পরিষেবা চালু করলো। বুধবার কোম্পানি সারাদেশে এই পরিষেবা লঞ্চ করেছে। যার দরুন গ্রাহকরা নেটওয়ার্ক ছাড়াই ওয়াই-ফাই এর মাধ্যমে ভিডিও কল ও ভয়েস কল করতে পারবে। এরজন্য গ্রাহকদের থেকে আলাদা কোনো চার্জ ও নেওয়া হবেনা। যদি আপনার কাছে কোনো প্রিমিয়াম স্মার্টফোন থাকে তবে কিছু সেটিংস পরিবর্তন করে আপনি, Wi-Fi এর সাহায্যে কল করতে পারবেন।
Jio নেটওয়ার্ক থেকে Wi-Fi কলিং এর জন্য ঘরের মধ্যে ব্যক্তিগত ওয়াইফাই বা বাইরে সার্বজনীন ওয়াইফাই হটস্পটের সাহায্য নিতে হবে। জিও তরফে জানানো হয়েছে ভিডিও এবং ভয়েস কলের সময় গ্রাহকরা সহজেই VoLTE এবং ওয়াই-ফাইয়ের মধ্যে স্যুইচ করতে পারবে। এর দরুন গ্রাহকরা কলের সময় আরও ভাল অভিজ্ঞতা পাবে। জিও-র এই পরিষেবা শীঘ্রই ১৫০ এর বেশি মিড রেঞ্জ ও প্রিমিয়াম স্মার্টফোনে উপলব্ধ হবে (ইতিমধ্যেই অনেক ফোনে সাপোর্ট করছে)।
অ্যান্ড্রয়েড ফোন ব্যবহারকারীরা এভাবে সেটিং বদলান : 
সবার প্রথমে আপনার ফোনের ‘সেটিং’ অপশনে যান ।
এবার ‘কল সেটিং’ এ যেতে হবে।
এখানে Wi-Fi কলিং অপশন সার্চ করুন (না পাওয়া গেলে আপনার ফোনে সাপোর্ট করবেনা)।
এবার সামনে আসা টোগলকে এনাবল করুন।
iOS ফোন ব্যবহারকারীরা এভাবে সেটিং বদলান : 
আপনার iOS ফোনের সেটিং অ্যাপ খুলুন।
এবার আপনাকে Phone সেটিংয়ে ট্যাপ করতে হবে।
এখানে Wi-Fi Calling অপশন দেখা যাবে। একে এনাবল করুন।
এই ফোনগুলোতে এখন পাওয়া যাচ্ছে :
Apple iPhone 6s এর পর থেকে সমস্ত আইফোনে এই পরিষেবা ব্যবহার করা যাবে। আবার প্প্রিমিয়াম ফোন Samsung Galaxy Note 10, Galaxy S10 এও ওয়াই ফাই কলিং পরিষেবা সাপোর্ট করবে। আবার Samsung Galaxy M20, Galaxy A70, Redmi K20, Redmi K20 Pro এবং Poco F1 এর মতো মিড রেঞ্জ ফোনেও এই পরিষেবা উপলব্ধ। যদিও ওয়ানপ্লাস ও অপ্পো-র কোনো ফোনে এক্ষুনি এই পরিষেবা সাপোর্ট করছেনা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here