এয়ারটেল, ভোডাফোন-আইডিয়ার পর গত ডিসেম্বরে নতুন প্ল্যান লঞ্চ করেছে রিলায়েন্স জিও। নতুন প্ল্যানে জিও তাদের বেশ কিছু প্ল্যানের দাম ৪০ শতাংশ পর্যন্ত বাড়িয়েছে। এছাড়াও এখন গ্রাহকরা আনলিমিটেড কলিংয়ের সুবিধা থেকেও বঞ্চিত হয়েছেন। এই অবস্থায় রিলায়েন্স জিও-র কোনটি বেস্ট প্ল্যান সেটা বুঝে ওঠা খুব কঠিন। তবে আজ আমরা আপনাদেরকে জিও ৪টি বেস্ট প্রিপেড প্ল্যান সম্পর্কে বলবো। যেখানে আপনি অন্যান্য প্ল্যানের তুলনায় অধিক সুবিধা পাবেন।
২৮ দিনের প্ল্যান :
যদি আপনি কম ভ্যালিডিটির প্ল্যান খোঁজ করেন তাহলে ১৯৯ টাকার প্ল্যান বেস্ট। এই প্ল্যানের বৈধতা ২৮ দিন। এই প্ল্যানে প্রতিদিন ১.৫ জিবি ডেটা ও ১০০ এসএমএস দেওয়া হবে। এরসাথে জিও থেকে জিও আনলিমিটেড কল এবং জিও থেকে অন্য নেটওয়ার্কে কলের জন্য ১,০০০ মিনিট পাওয়া যাবে। এরসাথে জিও অ্যাপের সাবস্ক্রিপশন বিনামূল্যে দেওয়া হবে।
৫৬ দিনের প্ল্যান :
এই প্ল্যানের মূল্য ৩৯৯ টাকা। এটি কোম্পানির নতুন প্ল্যান। এই প্ল্যানে গ্রাহকরা জিও থেকে জিও আনলিমিটেড কল এবং জিও থেকে অন্য নেটওয়ার্কে কলের জন্য ২,০০০ মিনিট পাবে। এখানেও রোজ ১.৫ জিবি ডেটা ও ১০০ এসএমএস দেওয়া হবে। এরসাথে জিও অ্যাপের সাবস্ক্রিপশন বিনামূল্যে পাওয়া যাবে।
৮৪ দিনের প্ল্যান :
জিও-র সবচেয়ে জনপ্রিয় প্ল্যান ছিল ৮৪ দিনের প্ল্যান। যার আগে মূল্য ছিল ৩৯৯ টাকা। তবে এখন তা বেড়ে হয়েছে ৫৫৫ টাকা। এখানে রোজ মিলবে ১.৫ জিবি ডেটা ও ১০০ এসএমএস। এছাড়াও গ্রাহকরা জিও থেকে জিও আনলিমিটেড কল করতে পারবে। আবার অন্য নেটওয়ার্কে কল করার জন্য ৩,০০০ মিনিট পাবে।
৩৬৫ দিনের প্ল্যান :
যদি আপনি জিও গ্রাহক হন এবং প্রতি মাসে রিচার্জ করা থেকে নিস্তার চান, তাহলে আপনার জন্য সেরা বিকল্প ২,০২০ টাকার প্ল্যান। এখানে গ্রাহকরা জিও থেকে জিও আনলিমিটেড কল করতে পারবে। আবার অন্য নেটওয়ার্কে কল করার জন্য ১২,০০০ মিনিট পাবে। এছাড়াও এই প্ল্যানে রোজ ১.৫ জিবি ডেটা ও ১০০ এসএমএস দেওয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here