গত ডিসেম্বরেই দাম বাড়িয়ে নতুন প্ল্যান এনেছিল টেলিকম কোম্পানিগুলো। সেইসময়ে বেশ কয়েকটি প্ল্যানের মূল্য ৪০ শতাংশের বেশি বাড়ানো হয়েছিল। টেলিকম কোম্পানিগুলির তরফে বলা হয়েছিল, লাভের মুখ দেখতেই এই সিদ্ধান্ত। যদিও স্বাভাবিক ভাবেই নতুন প্ল্যান পছন্দ হয়নি গ্রাহকদের। কারণ নতুন প্ল্যানে তাদের খরচ বেড়েছিল কয়েকগুন। এদিকে গ্রাহকদের অস্বস্তি বাড়িয়ে ফের একবার প্ল্যানের দাম বাড়তে পারে টেলিকম মার্কেটে গুঞ্জন ছড়িয়েছে।
রিপোর্ট অনুযায়ী আগামী কয়েকমাসে ২৫-৩০ শতাংশ দাম বাড়িয়ে ফের একবার নতুন প্ল্যান আনতে পারে সমস্ত টেলিকম কোম্পানি। এমনকি ভোডাফোন-আইডিয়া ভারতে থেকেও ব্যবসা গোটাতে পারে বলেও কয়েকটি সংবাদমাধ্যমে দাবি করেছে। এরপিছনে সবচেয়ে বড় দুটি কারণ হলো সুপ্রিম কোর্টে অ্যাডজাস্টেড গ্রস রেভেনিউ (AGR) এর পূর্ববর্তী রায় পুনর্বিবেচনার আর্জি খারিজ ও গ্রাহক প্রতি আয় না বাড়া।
প্রসঙ্গত সুপ্রিম কোর্ট গত ১৭ জানুয়ারি জানিয়ে দিয়েছে, শীঘ্রই সমস্ত টেলিকম কোম্পানিগুলোকে AGR বাবদ প্রায় ১.৪৭ লক্ষ কোটি টাকা কেন্দ্র কে মেটাতে হবে। এরমধ্যে ভোডাফোন আইডিয়াকে দিতে হবে প্রায় ৫৩,০০০ কোটি টাকা এবং এয়ারটেল কে চুকাতে হবে ৩৫,৫০০ কোটি টাকা। আবার রিলায়েন্স জিও কে মেটাতে হবে ১৩ হাজার কোটি টাকা। স্বাভাবিক ভাবেই এই বিপুল অর্থের বোঝা কোম্পানিগুলোর উপর চেপে যাওয়ায় তাদের দাম বাড়ানো ছাড়া আর কোনো উপায় নেই।
অন্যদিকে ডিসেম্বরে প্ল্যানের দাম বাড়ালেও গ্রাহক প্রতি আয় ততটা বাড়েনি, যতটা বাড়লে কোম্পানিগুলি লাভের মুখ দেখে। শুরুতে ভোডাফোন, এয়ারটেল আনলিমিটেড কলিং তুলে দিলেও, পরে তা ফেরত আনে। এছাড়াও জিও-র চাপে এয়ারটেল ও ভোডাফোন এখন বাধ্য হয়ে সস্তায় প্ল্যান নিয়ে আসছে। ফলে আয় বাড়ানোর প্রচেষ্টা ব্যর্থ হয়েছে। আর এই কারণেই আগামী কয়েকমাসের মধ্যেই নতুন করে সমস্ত প্ল্যানের দাম বাড়াতে পারে টেলিকম কোম্পানিগুলি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here